“১৯-২৩ জুলাই সারাদেশের অধস্তন আদালতে ৪৩১০টি মামলায় আত্মসমর্পণ করে ১১৭৯৬ জনের জামিন”

প্রকাশিত: ১১:৪২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০

১৯-২৩ জুলাই সারাদেশের অধস্তন আদালতে ৪৩১০টি মামলায় আত্মসমর্পণ করে ১১৭৯৬ জনের জামিন।

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে গত ১৯ থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করে ১১ হাজার ৭৯৬ জন আসামি জামিন পেয়েছে। তবে ৪ হাজার ৩১০টি মামলায় আত্মসমর্পণের পর ৯৩৮ জনের জামিন হলেও তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (২৬ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ও মুখপাত্র ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য জানান।

গত ৪ জুলাই স্বাস্থ্যবিধি এবং শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তি শুধুমাত্র চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবেন বলে সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। পরে গত ৫ জুলাই থেকে এসব কোর্টে আত্মসমর্পণ শুরু করে আসমিরা। এরপর গত ১১ জুলাই এ সংক্রান্ত আর একটি প্র্যাকটিস নির্দেশনা সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন থেকে বিজ্ঞপ্তি আকারে জারি করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রধান বিচারপতি সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে এ মর্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন যে, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ জারিকৃত স্বাস্থ্যবিধি এবং শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তি/ব্যক্তিরা অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবেন।

এ বিষয়ে অধস্তন আদালতের বিচারক/ম্যাজিস্ট্রেট এজলাস কক্ষে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনসহ শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় কার্যপদ্ধতি নির্ধারণ করবেন। অর্থাৎ অধস্তন সব কোর্টেই আত্মসমর্পণের সুযোগ দেয়া হয়।

স্পেশাল অফিসার ও মুখপাত্র ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান বলেন, গত ১৯ থেকে ২৩ জুলাই (রোববার-বৃহস্পতিবার) পর্যন্ত সারাদেশের অধস্তন আদালতে ৪ হাজার ৩১০টি মামলায় আত্মসমর্পণ আবেদন নিষ্পত্তি হয়। মোট ১১ হাজার ৭৯৬ জন অভিযুক্ত ব্যক্তির জামিন মঞ্জুর হয়েছে। ৯৩৮ জন অভিযুক্ত ব্যক্তিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


Categories