সড়কের বেহাল দশা, সীমাহীন দুর্ভোগ।

প্রকাশিত: ২:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২২
আবু জাহান তালুকদার, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সড়কের বেহাল দশা, সীমাহীন দুর্ভোগ।

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার একটি রাস্তা দীর্ঘদিনেও সংস্কার না হওয়ায় চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে।
স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় উপজেলার আঞ্চলিক সড়কের যোগাযোগ ব্যবস্থা তছনছ হয়ে গেছে। কিন্তু প্রয়োজনীয় সংস্কার না হওয়ায় উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের ধলইরগাও বনবিট অফিস হইতে কাউকান্দি বাজার পর্যন্ত সড়কের অবস্থা নাজুক। এ অবস্থায় সড়কটি এখন ওই এলাকার মানুষের কাছে মরণফাঁদ হিসাবে পরিচিতি পেয়েছে। প্রায়ই দুর্ঘটনার কারণে এই সড়কে চলাচলরত যানবাহনের যন্ত্রাংশ নষ্ট হচ্ছে। আহত হচ্ছেন সাধারণ যাত্রীরা।
স্থানীয়রা জানান, হেমন্তে এই সড়ক হয়ে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে আসা পর্যটকগণ উপজেলার টাঙ্গুয়ার হাওরসহ বিভিন্ন পর্যটন স্পটে চলাচল করে। এছাড়াও প্রতিদিন এই সড়ক দিয়েই শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নসহ আশপাশের এলাকার হাজার হাজার মানুষ চলাচল করেন। গেল বন্যায় সড়কটির বিভিন্ন অংশে ভাঙাচোরা ও গর্ত সষ্টি হওয়ায় যানবাহনের চাকা গর্তে আটকে যাচ্ছে, গর্তে পড়ে নষ্ট হচ্ছে যানবাহনের গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ। পাশাপাশি যাত্রীরা পড়ছেন চরম ভোগান্তিতে। প্রায়ই এই সড়ক দিয়ে চলাচলরত মোটরসাইকেল উল্টে গিয়ে যাত্রীরা আহত হচ্ছেন।
এই সড়ক পথের মোটরসাইকেল চালক সমিতির সভাপতি মোঃ শাহান শাহ আকবল বলেন, এই ধলইরগাও বনবিট অফিস থেকে কাউকান্দি বাজার পর্যন্ত সড়কের বেহাল দশা বন্যার পরবর্তী সময়ে আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাফেরা করছি। অনেক সময় রাস্তা হতে মোটরসাইকেল ছিটকে গিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে যাত্রীদের দুর্ঘটনা হয়। অতিদ্রুত রাস্তাটি মেরামত করার দাবি জানাই।
এ ব্যাপারে শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হায়দার বলেন, আমার ইউনিয়নের ধলইরগাও বনবিট অফিস থেকে কাউকান্দি বাজার পর্যন্ত সড়কের বেহাল দশা, এই রাস্তাটির কথা আমি উপর মহলে জানিয়েছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী ইকবাল কবির বলেন, আমরা এই রাস্তার প্রজেক্ট দিয়েছি, যদি প্রজেক্ট হয় তাহলে কাজ হবে নইলে না।

Categories