সুনামগঞ্জে ৫ হাজার পিস ইয়াবাসহ ২ ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২০

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
এই প্রথমবারের মতো সুনামগঞ্জের দিরাই মদরপুর রাস্তায় গোয়েন্দা সংস্থার রির্পোটে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব-৯ ও মাদক দ্রুব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের সদস্যদের সমন্বয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ৫ হাজার পিস ইয়ারা, ১টি মোটর সাইকেল,৫টি মোবাইল সেট ও নগদ ৮৪০টাকাসহ ২জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার করা হয়েছে।
বুধবার দুপুরে র‌্যাব -৯ এর সুনামগঞ্জ অঞ্চলের অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার মোঃ ফয়সল আহমদ ,এ এস পি মোঃ আব্দুল্লাহ ও মাদক দ্রুব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর সুনামগঞ্জের সহকারী পরিচালক মাজেদুল হাসান ও ইন্সপেক্টর মোঃ ইদ্রিছ আলীর নেতৃত্বে র‌্যাব সদস্যরা দিরাই রাস্তার মদনপুরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবাসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন মোঃ তাজুল ইসলাম(২৪)। সে জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের হালাবাদি গ্রামের মোঃ সানু মিয়ার ছেলে এবং অপরজন হলেন ধনপুর ইউনিয়নের ধনপুর গ্রামের মোঃ গোলাম রব্বানীর ছেলে মোঃ নুরুজ্জামান(২৩)।
র‌্যাব সূত্রে জানায় ইয়াবা ব্যবসায়ীরা নিজ বাড়ি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা থেকে মোটর সাইকেল যোগে সুনামগঞ্জে আসার পথে দিরাই মদরপুর রাস্তায় তাদের সন্দেহ হলে র‌্যাব তাদের মোটর সাইকেলটি আটক করে দেহে তল্লাশী চালিয়ে এই সমস্ত মরণ নাশক ইয়াবাসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়। সরকারী হিসেব অনুযায়ী ৫ হাজার পিস ইয়াবার মূল্য ২৬ লাখ টাকা,একটি মোটর সাইকেল দেড় লাখটাকা হবে।
এ ব্যাপারে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব -৯ এর এ এস পি মোঃ আব্দুল্লাহ গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,যেকোন ধরনের অপতৎপরতা বন্ধ করতে র‌্যাব সদস্যরা সব সময় সক্রিয় বলে জানান তিনি।
এ ব্যাপারে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব -৯ এর সুনামগঞ্জ অঞ্চলের অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার মোঃ ফয়সল আহমদ জানান মাদকদ্রুব্যর বিরুদ্ধে সরকারের জিরো ট্রলারেন্সের আলোকে র‌্যাব সদস্যরা সুনামগঞ্জে মাদক নির্মূলে বদ্ধপরিকর। তাই এই ইয়াবা ব্যবাসায়ীদের সাথে আরো কারা জড়িত রয়েছেন তাদের খোজেঁ বের করে আইনের আওতায় দ্রুত আনা সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।


Categories