সহজ ম্যাচ কঠিন করে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ৩ রানে জিতেছে পাকিস্তান।

প্রকাশিত: ৯:৪৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২

বাবরের ম্যাচ জয়ী ইনিংস

সহজ ম্যাচ কঠিন করে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ৩ রানে জিতেছে পাকিস্তান।

সাত ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। উভয় দল যেন পণ করেছে, কোনোভাবেই সিরিজ হাত ছাড়া করা যাবে না। সিরিজের প্রথম ম্যাচে হারার পর দ্বিতীয় ম্যাচে রাজকীয় প্রত্যাবর্তন করে পাকিস্তান। পুরো ১০ উইকেটে সফরকারীদের গুঁড়িয়ে দেয়। তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের ফের অসহায় আত্মসমর্পণ। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে আবারো সিরিজে সমতা এনেছে বাবর বাহিনী। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে মাত্র ৩ রানের জয় পেয়েছে পাকিস্তান।

পাকিস্তানের দেওয়া ১৬৭ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ইংল্যান্ডের। মাত্র ১৪ রানের মধ্যেই তিনটি উইকেট পড়ে যায়। এরপর বেন ডাকেট ও হ্যারি ব্রুক ইনিংস মেরামতে নামেন। বেন ডাকেট ৩৩ রান করে আউট হলে মাঠে নামেন মঈন আলি। ২৯ রান করে দলীয় ১০৬ রানের মাথায় আউট হয়ে যান তিনি।

একপর্যায়ে ১৭ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের আস্কিং রেট ওভারপ্রতি ১১-তে পৌঁছে যায়। ইংল্যান্ডের তখন দরকার ছিল তিন ওভারে ৩৩ রান। হাতে ছিল তিন উইকেট। কিন্তু ১৮তম ওভারে পাকিস্তানকে হতাশ করেন মোহাম্মদ হাসনাইন। দুশনের চার-ছক্কা আর নো বলের বদৌলতে সে ওভারে ইংল্যান্ডের স্কোরে জমা হয় ২৪ রান।

পাকিস্তানের জয়ের আশা তখনই একরকম শেষ হয়ে যায়। পরের ওভারে বল করতে আসেন হারিস রউফ। ৫ রান দিলেও তুলে নেন দুশনেরসহ (১৭ বলে ৩৪) দুটি উইকেট। ১৯ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৯ উইকেটে ১৬৭ রান। জেতার জন্য শেষ ওভারে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল চার রান। পাকিস্তানের টার্গেট ছিল একটি উইকেট।

এমন পরিস্থিতিতে শেষ ওভারের জন্য মোহাম্মদ ওয়াসিমকে ডাকেন অধিনায়ক বাবর আজম। প্রথম বলটি ডট হওয়ার পর দ্বিতীয় বলে রান আউট হন টপলে। তিন রানে হেরে যায় মঈন বাহিনী। স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে পাকিস্তান।

পাকিস্তানের হয়ে হারিস রউফ ও মোহাম্মদ নওয়াজ তিনটি করে উইকেট লাভ করেন। এছাড়া মোহাম্মদ হাসনাইন দুটি এবং ওয়াসিম একটি উইকেট লাভ করেন।

সিরিজের বাকি তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২৮ ও ৩০ সেপ্টেম্বর এবং ২ অক্টোবর।


Categories