সরকারি চাকরিজীবীদের মতো এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের P.R.L এর ব্যবস্থা করা হোক।

প্রকাশিত: ১:২২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৯, ২০২০

 

 

এমপিওভূক্ত শিক্ষকদের অবসর ভাতা প্রাপ্তিতে হয়রানি, দীর্ঘসূত্রতা দূর করুন কারণ শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড, শিক্ষক জাতির বিবেক। অথচ মানুষ গড়ার কারিগর কথাগুলো বেশ গুরুত্ব দিয়েই সুধীজনমাত্রই ব্যবহার করে থাকেন। এমন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের জীবনের প্রাপ্তিক ইতিহাস কেমন তা সমাজের ক’জনইবা খোঁজ রাখেন। ২০১৭ সালের বেসকারি টিভি চ্যানেলে পেনশন টেনশন শিরোনামে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তালাশ প্রচার করেছিল।প্রতিবেদনটিতে বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের অবসর ভাতা প্রাপ্তিতে হয়রানি,ভোগান্তি, দীর্ঘসূত্রতা করুণ কাহিনী তথ্য উপাত্তসহ সচিত্র প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়েছিল।কিন্তু প্রচারিত প্রতিবেদনটি প্রচারিত হওয়ার ভোগান্তি শে’ষ হচ্ছে না। অথচ প্রচারিত প্রতিবেদনে ভুক্তভোগীদের অবস্থা দেখে শিক্ষকদের গা শিউরে উঠেছিল। কারণ জাতির বিবেকধারী শিক্ষকদের এমন হয়রানি নিরসন হওয়া দরকার। কিন্তু আমি কে? আমার তো কিছু করার নেই। এর জন্য রয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবুও আশার প্রদীপ হাতে নিয়ে বঙ্গবন্ধু সুযোগ্য কন্যা, স্নেহ মমতায় বুক ভরা, মানবতার মা,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি অাকর্ষণের লেখার আশ্রয় নিলাম। অবসর ভাতা প্রাপ্তি সহজীকরণের জন্য সরকারি কর্মচারী জন্য চাকরি বিধিতে P.R.L ( post retirement leave)  এর ব্যবস্থা আছে। যেকারণে তাদের অবসর  ভাতা পেতে নেই কোনো হয়রানি, ভোগান্তি ও দীর্ঘসূত্রতা।অথচ এমপিওভূক্ত শিক্ষক কর্মচারীদের অবসর গ্রহণের পর থেকে তীর্থের কাকের মতো বছরের পর বছর ঘুরতে হয় কারণ অবসর, কল্যাণ ট্রাস্টের টাকা এখন সোনার হরিণের মত। আবার অবসরে যাওয়া প্রায় শিক্ষক মনে করছে মরার আগে অবসরে টাকা পাবে না কারণ সময়মত অবসরে টাকা না পাওয়ার কারণে বিনা চিকিৎসায় মারা গেছে শ্রদ্ধায় আইনুদ্দিন স্যার। আর তাই এমপিওভূক্ত শিক্ষক কর্মচারীদের অবসরে যাওয়ার পর বছর পর বছর যেন অপেক্ষা করতে না হয়, কাটাতে না হয় বিনিদ্র রজনী, থাকতে না হয় অনাহারে, মরতে না হয় বিনা বিনা চিকিৎসায় শিক্ষকদের।

সেই জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বিনীত অনুরোধ করছি, এমপিওভূক্ত শিক্ষক কর্মচারিদের অবসর  ভাতা প্রাপ্তি সহজীকরণ, হয়রানি,ভোগান্তি রোধে সরকারি চাকরিজীবীদের মতো P.R.L. ( post retirement leave) এর ব্যবস্থা করা হোক।

মো : তোফায়েল সরকার

যুগ্ম দপ্তর সম্পাদক

বাবেশিকফো, কেন্দ্রীয় কমিটি।


Categories