“শিবপুরে স্ত্রীসহ বাড়িওয়ালা দম্পতি হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের, থামছেইনা নিহতদের পরিবারের কান্না” 

প্রকাশিত: ৩:৫৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২০
মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদঃ শিবপুর (নরসিংদী)।

শিবপুরে স্ত্রীসহ বাড়িওয়ালা দম্পতি হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের, থামছেইনা নিহতদের পরিবারের কান্না ।      ফলো আপ –ট্রিপল মার্ডার

নরসিংদীর শিবপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীসহ তিনজনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
১৩ সেপ্টেম্বর রবিবার রাতে শিবপুর মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন নিহত বাড়িওয়ালা তাজুল ইসলামের ছেলে শাহিন মিয়া। অভিযুক্ত ভাড়াটিয়া বাদল মিয়াকে একমাত্র আসামী করে দায়ের করা মামলায় ইতোমধ্যেই গ্রেপ্তার দেখানোর পর নরসিংদী সদর হাসাপাতালে চিকিৎসা চলছে বাদল মিয়ার।
এদিকে গতরাতেই ময়নাতদন্ত শেষে নিহতদের নিজ গ্রাম শিবপুর উপজেলার কুমরাদী গ্রামের কবর স্থানে দফান করা হয় নিহতদের। এর আগে রবিবার ভোরে শিবপুর উপজেলার কুমরাদী গ্রামে পারিবারিক কলহের জের ধরে নৃসংশভাবে ছুরিকাঘাতে ভাড়াটিয়া কাঠমিস্ত্রি বাদল মিয়ার স্ত্রী নাজমা বেগম (৪০), বাড়ির মালিক তাজুল ইসলাম (৫৫) ও তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৪৫) কে ছুড়ি দিয়ে হত্যা করে বাদল মিয়া। আহত করে নিহত বাড়ির মালিক তাজুলের মেয়ে কুলসুম বেগম (২৩),ও নিহত ঘাতক বাদলের স্ত্রী নিহত নাজমার পূর্বের সংসারের ছেলে সোহাগ (১২) কে। আহত দুজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
শিবপুর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম জানান, গতকাল রবিবার রাতেই শিবপুর থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। যেহেতু অভিযুক্ত বাদল পুলিশী হেফাজতে রয়েছে, তাই দ্রুতই জিজ্ঞাসাবাদের পর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।
নিহতদের জানাজা, দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আহতরা চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিহত নাজমার ছেলে আহত সোহাগের অপারেশন হয়েছে। তাকে ডাক্তারের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এ দিকে নিহতদের পরিবারে থামছেইনা কান্না। এখনো চলছে নিহতদের পরিবারে শোকের মাতম।

Categories