রাজনগরের বিভিন্ন জায়গায় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান।

প্রকাশিত: ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০২০
মোঃ  সাইফুল ইসলাম, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার। 
জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সার্বিক নির্দেশনা এবং জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজারের তত্ত্বাবধানে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয় এর সহকারী পরিচালক জনাব মো: আল-আমিন এর নেতৃত্বে রাজনগর থানার পুলিশ ফোর্সের সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার মৌলভীবাজার রাজনগর উপজেলার ছোয়াব আলী বাজার, বড়দল রোড, মুন্সিবাজার, ভেতর বাজার, সিলেট রোডসহ বিভিন্ন জায়গায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর হাট বাজার, ফার্মেসী এবং অন্যান্য দোকানে মনিটরিং ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।  এই সময় ছোয়াব আলী বাজার, বড়দল রোড, মুন্সিবাজার, ভেতর বাজার, সিলেট রোডসহ বিভিন্ন জায়গায় তদারকি করা হয়। এর মধ্যে তদারকি অভিযানে মূল্য তালিকা না রাখা, মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ, খাদ্য পণ্য ও প্রসাধনী বিক্রয় করা, অতিরিক্ত দামে মাস্ক বিক্রয় করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে ছোয়াব আলী বাজারে অবস্থিত একটি ডিপার্টমেন্টাল ষ্টোরকে ৫ শত টাকা, বড়দল রোডে অবস্থিত একটি ফার্মেসীকে কে ২ হাজার ৫ শত টাকা, মুন্সিবাজারে  একটি ফার্মেসীকে ৫ হাজার টাকা, ভেতর বাজারে অবস্থিত একটি ষ্টোরকে ১ হাজার জরিমানা টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করা হয়।
ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, “পেঁয়াজ, রসুন, আদা, চাল, তেল, শাক-সবজি, কাচামালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী ন্যায্য মূল্যে প্রাপ্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এবং কেউ যাতে খাদ্য মজুত করে কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করতে না পারে, ভোগ্য পণ্য সামগ্রীর দাম যেন কেউ অনৈতিক ভাবে বাড়াতে না পারে এবং নকল হ্যান্ড সেনিটাইজার ও সংক্রমণরোধী জীবাণুনাশক বিক্রয় না করতে পারে সেই লক্ষ্যে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক প্রতিনিয়ত বাজার মনিটরিং কার্যক্রম চলমান থাকবে।”

Categories