“মোবাইলে এ্যাডভোকেট সেজে সাংবাদিককে হুমকি দিলো একজন বিজিবি সদস্য!”

প্রকাশিত: ৭:১৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০২০
স্টাফ রিপোর্টারঃ অহিদুল ইসলাম।

মোবাইলে এ্যাডভোকেট সেজে সাংবাদিককে হুমকি দিলো একজন বিজিবি সদস্য! 

নওগাঁর সাপাহারে সংবাদ প্রকাশ করাকে কেন্দ্র করে সাংবাদিক মনিরুল ইসলামকে ফোন করে এ্যাডভোকেট পরিচয় দিয়ে মামলা করার হুমকি প্রদান করেছে ভুট্টো (৪০) নামে এক বিজিবি সদস্য। ভুট্টো উপজেলার খঞ্জনপুর গ্রামের সাব্বির হোসেনের ছেলে বলে জানা গেছে।
গত ২৪ আগষ্ট সোমবার দুপুর দুইটার দিকে (01764-641325) এই নম্বর থেকে সাংবাদিক মনিরুল ইসলামকে ফোন দিয়ে নিজে নওগাঁ আদালতের এ্যাডভোকেট পরিচয় দিয়ে বলে “আপনি যে ছবি ফেসবুকে ছেড়েছেন তা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আওতায় পড়ে, বাদী আমার কাছে এসেছে মামলা করার জন্য”। কলদাতার পরিচয় জানতে চাওয়া হলে সে নওগাঁ আদালতের এ্যাডভোকেট বলে ফোনটি কেটে দেয়।
এছাড়াও কথার মধ্যে মামলা-হামলার ভয়ভীতি দেখান ওই বিজিবি সদস্য ভুট্টো।
তাৎক্ষনিক স্থানীয় সাংবাদিকরা ওই ফোন নাম্বারের খোঁজ খবর নিলে জানা যায় ওই নম্বরটি বিজিবি সদস্য ভুট্টোর।
উল্লেখ্য যে, গত ২২ আগষ্ট “সরকারী জায়গা জোর জবরদস্তি করে ঘিরে নেওয়ার অভিযোগ” শীর্ষক শিরোনামে ওই বিজিবি সদস্য ভুট্টোর বিরুদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করে। এই সংবাদে ক্ষুব্ধ হয়ে নওগাঁ আদালতের এ্যাডভোকেট পরিচয় দিয়ে নিজ নম্বর (01764-641325) থেকে ফোন দিয়ে মামলা হামলার ভীতি প্রদর্শন করেন ওই বিজিবি সদস্য ভুট্টো।
এ ব্যাপারে সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম বলেন, বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করেছি। আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে বিজিবি সদস্য ভুট্টু ও তার ছোট ভাই আয়নাল। এ বিষয়ে বিজিবি সদস্য ভুট্টু যে ব্যাটালিয়নে চাকুরী করে সেখানে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিজিবি সদস্য ভুট্টোর সাথে (01764-641325) এই নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।
এ ব্যাপারে নওগাঁ জেলা এাডভোকেট বার এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি সিনিয়র এ্যাডভোকেট ডিএম আব্দুল বারীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, যদি সে ব্যক্তি এ্যাডভোকেট না হয়ে ভুয়া পরিচয় প্রদান করেন তাহলে নিশ্চিতভাবে এটি অন্যায় ও আইন বিরোধী।
স্থানীয় সংবাদকর্মীরা বিজিবি সদস্য ভুট্টুর এমন কাজে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

Categories