“মধুপুরে বিষ প্রয়োগে এক হাজার হাসের ছানা মারার অভিযোগ”

প্রকাশিত: ১১:০৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০২০

আবু সামা টাঙ্গাইলঃ

মধুপুরে বিষ প্রয়োগে এক হাজার হাসের ছানা মারার অভিযোগ ।

টাঙ্গাইলের মধুপুরে বিষ প্রয়োগে এক হাজার হাঁসের ছানা মারা যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মধুপুর পৌরসভার দুর্গাপুর এলাকার দরগার ডুবার পাড়ে।

সোমবার (২৪ আগস্ট) সকাল থেকে বিকেলে পর্যন্ত প্রায় এক হাজার হাঁস মরে যায়। খামার মালিকের দাবি, ৪৯ দিন বয়সী হাঁসের খামারে রাতের কোনো এক সময় খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

খামার মালিক আরিফ জানান, খাকি ক্যাম্বেল জাতের এক হাজার ১০০ হাঁসের ছানা নিয়ে গত ৮ জুলাই কাকা শাহজামালের নেতৃৃত্বে ভাই আলহাজের যৌথ প্রচেষ্টায় বাড়ির পাশেই ডুবার পাড় এলাকায় হাঁসের খামার গড়ে তোলেন। দেড় মাস ধরে তারা যত্ম নিয়ে যৌথ খামারকে এগিয়ে নিচ্ছেন। রোববার রাতে খামারের হাঁসগুলোকে খাবার খাইয়ে যথারীতি বাড়িতে চলে যান। সকালে খামারে গিয়ে দেখেন কয়েকশ’ হাঁস মরে পড়ে আছে। পরে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে থাকে। মৃত্যুর কারণ জানতে একটি মৃত, দুটো জীবিত হাঁস নিয়ে ছুটে যান মধুপুর প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ে। সেখান উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হারুন অর রশীদের উপস্থিতিতে মৃত হাঁস চিরে বিষক্রিয়ার লক্ষণ পাওয়া যায়।

মধুপুর উপজেলা ভ্যাটেরিনারি ফিল্ড এসিস্ট্যান্ড (বিএফএ) ওবাইদুল্লাহ লিটন জানান, খাকি ক্যাম্বেল জাতের হাঁসগুলোর বয়স ছিল ৪৯ দিন। শুরু থেকে খামারিদের পরামর্শ দিয়ে খামারিকে এগিয়ে নেওয়া হচ্ছিল। সোমবার অন্যতম খামারি আরিফ হাঁস নিয়ে হাসপাতালে এলে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হারুন অর রশীদের উপস্থিতিতে মৃত হাঁস চিরে বিষক্রিয়ার লক্ষণ দেখা যায়।
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হারুন অর রশীদ জানান, টক্সিন সমস্যায়ও এমন হতে পারে। খামারের বাকি হাঁসের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিক কামাল জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিষক্রিয়া হাঁসের ছানা গুলো মারা গেছে। তবে ভ্যাটেরিনারি সার্জনের মাধ্যমে পরীক্ষা শেষে বলা যাবে বিষক্রিয়া বা অসুস্থ্য হয়ে মারা গেছে কিনা। এর পর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


Categories