ভবিষ্যতের শহরের প্রথম বাসিন্দাদের বিনামূল্যে জমি দেবে সৌদি আরব

প্রকাশিত: ২:২৭ অপরাহ্ণ, জুন ২৪, ২০২০

তেলভিত্তিক অর্থনীতি থেকে সরে এসে এতে বৈচিত্রতা আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। এরইমধ্যে ঘোষণা করেছেন ভিশন-২০৩০। এ লক্ষ্যে দেশের মধ্যে ব্যাপক উদারিকরণ প্রক্রিয়া চালিয়েছেন তিনি। বিনোদন খাতে বিনিয়োগের পাশাপাশি পশ্চিমা ধাচের আধুনিক শহর নির্মানের প্রকল্প হাতে নিয়েছে সৌদি আরব। হাতে নেয়া হয়েছে মহাপ্রকল্প। একে ভবিষ্যতের পৃথিবীর সবথেকে আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে আগাচ্ছে সৌদি। এ জন্য বেছে নেয়া হয়েছে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় নির্জন সমুদ্রতীর। তবে এখনি সেখানে গিয়ে লোকালয় গড়ে তুলতে ইচ্ছুকদের বিনামূল্যে জমি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব।

সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর।
ভবিষ্যতের এই শহরটি গড়ে তোলা হবে যে অঞ্চলে সেটি তাবুকের অন্তর্ভুক্ত। তাবুলের গভর্নর প্রিন্স ফাহদ বিন সুলতান ইতিমধ্যে প্রাথমিক ধাপগুলোর ঘোষণা দিয়েছেন। এতে বলা হয়েছে, নির্জন ওই স্থানে প্রথমে জনবসতি গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য প্রথমে যারা সেখানে বাস করতে ইচ্ছা প্রকাশ করবে তাদেরকে বিনামূল্যে জমি প্রদান করা হবে বলে ঘোষণা করেন তিনি।
কেমন হবে ভবিষ্যতের শহরটি সে পরিকল্পনাও প্রকাশ করা হয়েছে। এটি হবে স¤পূর্ন পরিবেশবান্ধব নগরী। পৃথিবীর সবথেকে আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে আসা হবে এখানে। কেউ কেউ একে তাই সিটি অব রোবটও বলতে শুরু করেছেন। প্রাথমিকভাবে সৌদি আরব ৫০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে সেখানে। আস্তে আস্তে এখানে বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে আসা হবে। সৌদি আরব আশা করছে দ্রুতই সেখানে মানুষ বসতি গড়তে আগ্রহী হয়ে উঠবে। বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার আশ্বাসও দেয়া হয়েছে। নিকট ভবিষ্যতেই সমুদ্র তীরবর্তী নির্জন এ অঞ্চলে কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষ স্থায়ীভাবে বাস করতে শুরু করবে এমন টার্গেট নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছে সৌদি আরব।