“ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইলের এক কৃতি সন্তানের স্বপ্ন পূরণের গল্প”

প্রকাশিত: ১:৫০ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২০

কথায় বলে  “বৃক্ষ তোমার নাম কি- ফলে পরিচয়”  অনুরূপ সমাজে বহুত প্রচলিত ” কষ্ট করিলে কেষ্ট মিলে”

এমনটিই প্রমাণ করে দিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাধিন সরাইল উপজেলার মেঘনা ও তিতাস নদীর অববাহিকায় অবস্থিত আরুয়াইল ইউনিয়নের রানিদিয়া গ্রামের একটি পরিবার।

হাজী মোঃ শহীদুর রহমান- ৩ ছেলে ও ৭ মেয়ে। ১০ ছেলে-মেয়ে। অবস্থার দিক দিয়ে খুব একটা শক্তিশালী না থাকলেও তিনি যেন পণ করেছেন সকলকে লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষের মত মানুষ করবেন। করেছেন ও তাই, কাউকে উচ্চ মাধ্যমিক, কাউকে স্নাতক, কাউকে এল, এল, বি, কাউকে মাস্টার ডিগ্রি সম্পন্ন করিয়েছেন।

বর্তমানে তাঁর দুই ছেলে ও চার মেয়ে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। এক ছেলে এল এল বি ফাইনাল পরীক্ষার  ফল প্রত্যাশি। ছোট মেয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলায় অনার্স সম্পন্ন করে মাস্টার্সে অধ্যায়নরত। বর্তমানে সে একজন স্বার্থক বাবার উদাহরণ।

আরেক মেয়ে  রিফাত জাহান রিমা । ১০ ছেলে-মেয়ের মধ্যে নবম।  তাঁকে বলা হতো একটি Merit Bomb । তাকে নিয়ে তার পরিবারের সবার যেমন অনেক বড় স্বপ্ন ছিল তেমনি এলাকার যারা শুভাকাঙ্ক্ষি তাদেরও অনেক স্বপ্ন ছিল। সকলের সেই স্বপ্ন যেন আজ বাস্তবের পথে পা রাখল। সেই রিফাত জাহান রিমা  ৩৮তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। তার এ কৃতিত্বে তার যেমন স্বপ্ন পূরণ হয়েছে তেমনি পূরণ হয়েছে তার পরিবারের তথা তার সমাজের।

৩০ জুন মঙ্গলবার বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন  (পিএসসি) থেকে ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশের পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। রিফাত জাহান শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট (শাবিপ্রবি) থেকে ইংরেজিতে  স্নাতক ও স্নাতকোত্তর (১ম শ্রেণি) সম্পন্ন করেছেন।

বর্তমানে রিফাত জাহান রিমা বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক-এ জুনিয়র অফিসার হিসেবে কর্মরত আছে।

রিফাত জাহান রিমার এই কৃতিত্বের জন্য তার মা বাবা, ভাই-বোন  সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

 

 


Categories