ব্রাজিল-পেরু ম্যাচ- শরীরি ফুটবলের এক মহা লড়াই।

প্রকাশিত: ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১

ব্রাজিল-পেরু ম্যাচ- শরীরি ফুটবলের এক মহা লড়াই।

কার্ড ছড়াছড়ির এই ম্যাচে ফাউল হয়েছে ২৯টি, নয়টি হলুদ কার্ড, তন্মধ্যে পেরু পাঁচটি। চারটি ব্রাজিল। এরপর ও নেইমার জাদুতে ঘরের মাঠে পেরুকে ২-০ গোলে হারিয়ে টানা অষ্টম জয় পেলো ব্রাজিল। অর্থাৎ, বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আট ম্যাচের আটটিতেই জিতলো পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

ব্রাজিল-পেরু ম্যাচজুড়ে দেখা গেছে শরীরি ফুটবলের মহা লড়াই। সংঘাতময় ম্যাচে রেফারিকে খরচ করতে হয়েছে নয়টি হলুদ কার্ড। তন্মধ্যে পেরু পাঁচটি। চারটি দেখেছে ব্রাজিল। ম্যাচ তো নয়, যেন একটা যুদ্ধ শেষ হলো!

দুই দলই মুহুর্মুহু আক্রমণ করেছে পেশীশক্তির এই ম্যাচে। সাফল্য পেয়েছে কেবল ব্রাজিল। ম্যাচের দুটো গোলই করেছে হলুদ শিবির ব্রাজিল। দুটোই বিরতির আগে। পেরুর বিরুদ্ধে ২-০ গোলের জয়ে অবদান আছে নেইমারের। ৪০ মিনিটে ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি করেন পিএসজি ফরওয়ার্ড। ১৪ মিনিটে এভারটন রিবেইরোর গোলে লিড নেয় ব্রাজিল।

গোলখরায় কেটেছে ম্যাচের দ্বিতীয় ভাগ। আসলে ওই সময়টাতেই নেতিবাচক ফুটবল খেলায় মেতে ওঠে দুই দল। নয়টি হলুদ কার্ডের আটটিই রেফারি খরচ করেছেন দ্বিতীয়ার্ধে। কার্ড ছড়াছড়ির এই ম্যাচে ফাউল হয়েছে ২৯টি। ব্রাজিল ১০টি শটের চারটি গোলমুখে রাখতে পেরেছে। আর পেরুর ১২ শটের একটিই কেবল লক্ষ্যে ছিল।

বাছাইপর্বে এনিয়ে টানা আট ম্যাচের সবকটিই জিতল ব্রাজিল। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের আর কোনো দলের শতভাগ জয়ের রেকর্ড নেই। তবে সেলেকাওদের সঙ্গে একটা মিল আছে আর্জেন্টিনার। আট ম্যাচ খেলে তারাও ব্রাজিলের মতো অপরাজিত আছে। পার্থক্য, সেলেকাওরা জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে। আর মাঝখানে ছন্দপতন হয়েছিল আর্জেন্টিনার।

২৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে আছে শীর্ষে থাকা ব্রাজিল। ১৮ পয়েন্ট নিয়ে আর্জেন্টিনার অবস্থান দ্বিতীয়তে। নয় ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে উরুগুয়ে। ব্রাজিলের কাছে হেরে সাত নম্বরে নেমে গেছে পেরু। নয় ম্যাচে আট পয়েন্ট তাদের। এই হারে শেষ হয়ে গেছে পেরুভিয়ানদের বিশ্বকাপের মূলপর্বের টিকিটের স্বপ্ন।

আর্জেন্টিনা ৩-০ বলিভিয়া, ব্রাজিল ২-০ পেরু, প্যারাগুয়ে ২-১ ভেনিজুয়েলা, উরুগুয়ে ১-০ ইকুয়েডর, কলম্বিয়া ৩-১ চিলি।


Categories