বিনা পারিশ্রমিকে দুই হাজারেরও বেশি কবর খননকারী ‘নাদেল’ আর নেই

প্রকাশিত: ৭:০৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০
মোঃ দুদু মিয়া তানভীর, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ
মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি উপজেলায় বিনা পারিশ্রমিকে প্রায় দুই সহস্রাধিক  কবর খননকারী হাজী মোঃ সফিক উদ্দীন চৌধুরী  নাদেল (৫৫) মৃত্যুবরণ করেন।
আজ ১৯ আগস্ট ( বুধবার)  ভোর ৬ টার দিকে সিলেটের একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। মানবতার লাদেন প্রায় দুই সপ্তাহ যাবৎ মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালের আইসিইউতে ছিলেন।তিনি উপজেলার জায়ফর নগর ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামের মৃত হাজী মোঃ মবশ্বির আলী চৌধুরীর ছেলে।
দাফন কাজে তিনি সর্বদা সেচ্ছায়  প্রস্তুত থাকতেন হাজী মোঃ সফিক উদ্দীন চৌধুরী  নাদেল।তিনি সবার কাছে নাদেল নামে পরিচিত।
জানা জায়, বরাবরের মত ঈদুল আযহার পরের দিন কবর খনন করার জন্য দা , কোদাল, খন্তাসহ পুরো সরঞ্জাম সহ দাফন কার্যে বের হয়েছিলেন মানবতার এ লাদেন।ঐ দিন দাফন কার্য শেষে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এমতাবস্থায় তাকে কুলাউড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে সিলেটের একটি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়।শারীরিক অবস্থান অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে রাখা হয়।সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।
মরহুম লাদেন যেখানে মৃত্যুর খবর পেতেন সেখানেই  ছুটে যেতেন দা , কোদাল, খন্তাসহ পুরো সরঞ্জাম নিয়ে। দূরদূরান্তে কবর খনন করার জন্য তাঁর রয়েছে একটি পিকআপ গাড়ী। তাঁর এ গাড়ীতে থাকত দা , কোদাল, খন্তাসহ দাফন কার্যের পুরো সরঞ্জাম। তিনি কখনো কখনো দিনে  ৩-৪ টি কবর খনন করতেন। তিনি মৃত্যুর  আগ পর্যন্ত প্রায় ২ হাজার কবর বিনা পারিশ্রমিকে খনন করেছেন। কারো কারো মতে ২ হাজারেরও বেশি কবর খনন করছেন।
তিনি কবর খননের পাশাপাশি রাস্তাঘাট মেরামত সহ নানা সামাজিক কাজে সহযোগীতা করেছেন। তিনি হলেন মানবতার প্রতিক ‘”নাদেল”।

 


Categories