বাংলাদেশসহ তিউনিসিয়া, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়া ও কুয়েতের জন্য আসছে ‘একক হজ’ সুবিধা।

প্রকাশিত: ৫:৫৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০২৩

বাংলাদেশসহ তিউনিসিয়া, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়া ও কুয়েতের জন্য একক হজ সুবিধা চালু করবে সৌদি আরব। এতে বাংলাদেশিরা হজ ও ওমরাহ সম্পন্নের জন্য দ্রুত ভিসা চেয়ে আবেদন জমা দিতে পারবেন। বাংলাদেশিদের পাশাপাশি আরও চারটি দেশ এ সুবিধা পাবেন। সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ কথা জানিয়েছে।

কর্মকর্তারা জানান, নতুন সুবিধার আওতায় বাংলাদেশসহ তিউনিসিয়া, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়া ও কুয়েত এই পাঁচটি নির্দিষ্ট দেশ থেকে হজ ও ওমরাহ পালনে আগ্রহীরা অনলাইনে এককভাবে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন। আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য ও শারীরিক বৃত্তান্ত, আঙ্গুলের ছাপ, আইরিস নিবন্ধনের কাজগুলোও অনলাইনে করা যাবে।

সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভিসা বায়ো অ্যাপের সাহায্যে পাঁচ দেশের আবেদনকারীরা নিজেদের তথ্য জমা দিতে পারবেন। বাংলাদেশ, তিউনিসিয়া, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়া ও কুয়েত থেকে হজ ও ওমরাহ গমনেচ্ছুরা এ সুবিধা পাবেন। ভিসা বায়ো অ্যাপের মাধ্যমে আগ্রহীদের এককভাবে জমা দেওয়া আবেদনগুলো দ্রুত বিবেচনা করা হবে ও তাদের জন্য ভিসা ইস্যু করা হবে।

ভিসা বায়ো অ্যাপের সাহায্যে এককভাবে আবেদনের পাশাপাশি পাঁচ দেশের নাগরিকরা নুসুক অ্যাপের সাহায্যে ওমরাহ ও রওজা শরীফ জিয়ারতের পারমিট সংগ্রহ করতে পারবেন।

সূত্র জানায়, হজ ও ওমরাহ গমনেচ্ছুদের জন্য সমন্বিত বীমা সুবিধা চালুর বিষয়টিও মন্ত্রণালয়ের বিবেচনাধীন রয়েছে। এতে করে হজ ও ওমরাহ পালনের জন্য সৌদি আরবে গিয়ে জরুরি স্বাস্থ্যগত সমস্যা দেখা দিলে, কোভিড-১৯ সংক্রমণ হলে, কোনো দুর্ঘটনা বা মৃত্যু ঘটলে অথবা ফ্লাইট বাতিল ও বিলম্বিত হলে সংশ্লিষ্টরা ক্ষতিপূরণ আদায় করতে পারবেন।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী বছরগুলোতে হজ ও ওমরাহ সংক্রান্ত সব প্রক্রিয়া ইলেকট্রনিক উপায়ে সম্পন্নের সুবিধা আসবে। এতে করে হজ ও ওমরাহ পালনকারীরা সৌদি আরবে আগমন, হোটেল রিজার্ভেশন, পরিবহন ও অন্যান্য সেবা প্রাপ্তি, ওমরাহ ও জিয়ারতের সময় বুকিংয়ের মতো আনুষ্ঠানিকতাগুলো ইলেকট্রনিক অ্যাপের মাধ্যমেই সম্পন্ন করতে পারবেন।

বিগত বছরে বিভিন্ন দেশের মোট ৭০ লাখ মানুষকে সেবা দিয়েছে হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে ৪০ লাখ মানুষ ওমরাহ ভিসা নিয়ে সৌদি আরবে যান। উৎস-24livenewspaper.


Categories