**ফল ও সবজি জীবাণুমুক্ত করার সঠিক উপায়**

প্রকাশিত: ৬:২৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২০

এখন যখন আমরা একটি অত্যন্ত সংক্রামক ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছি, নিজেকে এবং চারপাশ পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখা সবসময়ই অপরিহার্য ছিল।  এই সময়ে তা আরও বেশি জরুরি হয়ে পড়েছে। শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও সুস্থ শরীর মহামারী থেকে নিজেকে রক্ষা করার প্রথম ধাপ। সুরক্ষিত থাকতে আপনি ঘরের মেঝে পরিষ্কারের জন্য জীবাণুনাশক ব্যবহার করতে পারেন, কিন্তু বাজার থেকে যে সবজি এবং ফল কিনে আনা হয়, সেগুলো জীবাণুমুক্ত করার উপায় কী?

শীততাপ নিয়ন্ত্রিত সুপার শপ হোক কিংবা ফুটপাত হোক, আপনি যেখান থেকেই শাকসবজি এবং ফলমূল কেনেন না কেন, এগুলো যে জীবাণুমুক্ত সেই নিশ্চয়তা আপনাকে কেউ দিতে পারবে না। বিভিন্ন উৎস থেকে সবজি এবং ফল সংগ্রহ করা হয় এবং তারপরে সেগুলো বাজারে পৌঁছায়। কীভাবে সেগুলো পরিবহণ করা হয়েছিল এবং কীভাবে রাখা হয়েছিল তা আপনি জানেন না। এছাড়াও, বাজারের স্থান সাধারণত আর্দ্র থাকে যা ব্যাকটিরিয়ার জন্য নিখুঁত প্রজনন ক্ষেত্র। সুতরাং, আপনি ঘরে যে ফল এবং শাকসবজি নিয়ে আসেন সেগুলো জীবাণুমুক্ত করাও জরুরি।

টাইমস অব ইন্ডিয়া প্রকাশ করেছে এমন পাঁচটি উপায়ের কথা যা মেনে চললে ফল ও শাকসবজি জীবাণুমুক্ত করা সম্ভব। জেনে নিন সেগুলো কী:-

১. বিক্রেতাদের কাছ থেকে কেনা ফল এবং শাকসবজি সঙ্গে সঙ্গে ফ্রিজে রাখবেন না। এগুলো প্যাকেটের মধ্যেই আলাদা জায়গায় রেখে দিন।

২. শাকসবজি এবং ফলগুলো একটি বড় পাত্রে রাখুন এবং পানিতে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। আপনি গরম পানিতে এক ফোঁটা ৫০পিপিএম ক্লোরিন মিশিয়ে তাতে কয়েক মিনিটের জন্য এগুলো ডুবিয়ে রাখতে পারেন।

৩. ফল ও সবজি সব সময় বিশুদ্ধ পানি দিয়ে পরিষ্কার করুন।

৪. জীবাণুনাশক, ক্লিনিং ওয়াইপ বা সাবান ফল ও শাকসবজি পরিষ্কারে ব্যবহার করা উচিত নয়।

৫. ফলমূল ও শাকসবজি সঠিকভাবে পরিষ্কার করার পরে এগুলো সঠিক জায়গায় রাখুন। যেগুলো ফ্রিজে রাখা যায়, সেগুলো ফ্রিজে রাখুন। যেগুলো ফ্রিজে রাখার দরকার নেই সেগুলো একটি ঝুড়ি বা র্যাকে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখুন।

এছাড়াও ঃ

  •   বাজার থেকে ফিরে আপনি জুতা বাড়ির ভিতরে আনবেন না।
  •    ঘরে প্রবেশের সাথে সাথে ৩০ সেকেন্ডের জন্য আপনার হাত সাবান এবং পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হাত পরিষ্কার করার আগে ঘরের ভেতরে কোনো কিছু ছোঁবেন না।
  •  বাড়িতে পৌঁছানোর পরে আপনার জামাকাপড় পরিবর্তন করুন এবং ব্যবহৃত কাপড়গুলো আলাদা ওয়াশিং বাক্সে রাখুন বা সম্ভব হলে ধুয়ে ফেলুন।
  • প্যাকেটবন্দি খাবারের ক্ষেত্রে খাবারের প্যাকেট অ্যালকোহল-ভিত্তিক দ্রবণ বা সাবান এবং পরিষ্কার পানিতে মুছে জীবাণুমুক্ত করুন।
  • খাবারের জিনিস ধুয়ে নেয়ার পর আপনার হাত এবং যে জায়গায় পরিষ্কার করেছেন সেই জায়গাও জীবাণুমুক্ত করে নিন। সিঙ্কের পরিষ্কারের পাশাপাশি এর চারপাশের মেঝেও পরিষ্কার করে নিন।

Categories