নিখোঁজ সেই ব্যবসায়ীর লাশ সুনামগঞ্জের হাওরেই ভেসে উঠলো!

প্রকাশিত: ১২:২৩ অপরাহ্ণ, জুন ১৯, ২০২০

আবু জাহান তালুকদার:সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::
নৌডুবিতে নিখোঁজের তিনদিন পর হাওরেই ভেসে উঠলো কিশোরগঞ্জের সেই ব্যবসায়ী স্বপন মিয়া (৩৫)’র লাশ।
শুক্রবার সকাল ৬টায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের উওর শ্রীপুর ইউনিয়নের লাকমা গ্রাম লাগোয়া চুনখলা হাওরে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।
নিহত স্বপন কিশোরগঞ্জ জেলার তারাইল উপজেলার কাজলা গ্রামের কেরামত আলীর ছেলে। তার স্ত্রী ও এক শিশু পুত্র রয়েছে।
প্রসঙ্গত,দরিদ্র পরিবারের কিশোরগঞ্জের সন্তান স্বপন মিয়া বয়োবৃদ্ধ মাতা পিতা ও পরিবারের সদস্যদের জীবন জীবিকার তাগিদে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের দুধের আউটা গ্রামে থেকে গত প্রায় ১৩ হতে ১৫ বছর ধরে হাওর ও সীমান্তজনপদে ছোট নৌকায় ফেরী করে তৈল ব্যবসা করে আসছিলেন।,
জানা গেছে,স্বপন কাঠের তৈরী নিজস্ব ছোট নৌকায় ফেরী করে প্রতিদিনের ন্যায় তাহিরপুরের সীমান্তজনপদ লালঘাটসহ বিভিন্ন গ্রামে তৈল বিক্রি শেষে বুধবার বিকেলে দুধের আউটা গ্রামে ফিরছিলেন।,
ওই সময় ঝড়ো বাতাসে নৌ ডুবিতে উপজেলার চুনখলা হাওরে নিখোঁজ হন তিনি।
বুধবার সন্ধার দিকে হাওরে ডুবে যাওয়া নৌকা তৈলের কন্টেইনার, খাদী ও বাঁশের ভাড় স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করেছেন।
অপরদিকে বুধবার বিকেল হতে রাত অবধি স্থানীয় লোকজন এবং পরদিন বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা হতে বিকেল সাড়ে ৫টা অবধি সিলেট ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ওই হাওরে উদ্যার অভিযান চালিয়ে তার কোন  সন্ধান পাননি।
শুক্রবার সকালে তাহিরপুর থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান জানান, খবর পেয়ে নিহত স্বপনের ভগ্নিপতি জিল্লুর রহমানসহ পরিবারের লোকজন বৃহস্পতিবার বিকেলে তাহিরপুর এসে পৌছেন, যেহেতু এখন তার লাশ পাওয়া গেছে এমনকি কোন ধরণের অভিযাগ না থাকায় আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তার লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে। ,