নিউ শেভরন ল্যাবের প্যাডে আগে থেকেই ডাক্তারের স্বাক্ষর।

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০২০
এম. ইউছুফ | চট্টগ্রাম ||
নিউ শেভরন ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে ল্যাব চালু করেন প্রতারক আবু নঈম। চট্টগ্রামের  বোয়ালখালী উপজেলার শাকপুরা চৌমুহনীর আজিজ মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ভুয়া ল্যাব খুলে প্রতিনিয়তই মানুষকে ঠকিয়ে যাচ্ছেন লোক চক্ষুর অন্তরালে। অসহায় চিকিৎসা প্রার্থীর কারও কিছু বুঝে উঠার সাধ্য নাই। বড় বড় ডাক্তার আর ল্যাব টেকনিশিয়ানের সাইন করা প্যাডে রিপোর্ট রোগীর বুঝার কথাও না। আগে থেকেই সব সাইন করা।
বুধবার (১৫ জুলাই) ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরীর হাতে নিউ শেভরণ নামে এ ল্যাবের জালিয়াতি ও প্রতারণা ধরা পড়ে। এ সময় প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা এবং মালিককে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।
ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী জানান, ডায়াগনস্টিক সেন্টার নিউ শেভরনকে সিলগালা করে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে এবং মালিককে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী আরো
জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুনের নির্দেশে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে দেখা যায় পূর্বেই ডায়াগনস্টিক সেন্টারের প্যাডে ল্যাব টেকনিশিয়ান ও ডাক্তারের স্বাক্ষর রাখা হয়েছে। এতে উপস্থিত কোনো প্রশিক্ষিত ল্যাব টেকনিশিয়ান বা ল্যাব সহকারী পাওয়া যায়নি। ল্যাব পরিচালনার কাগজপত্র পরীক্ষা করে দেখা যায় সকল কাগজই মেয়াদোত্তীর্ণ।
নিউ শেভরনে ম্যাজিস্ট্রেটের অভিযানের পর স্থানীয়দের চোখ কপালে ওঠে। তারা বিশ্বাসই করতে পারছিল না ল্যাবে এ ধরনের প্রতারণা হচ্ছে। ল্যাবের মালিক ও সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তারা।
চট্টগ্রামে এ রকম আরো প্রতিষ্ঠান আছে বলে দাবী করেন স্থানীয়রা। সংশ্লিষ্টদের মতে ল্যাবে কয়জন ডাক্তার বা টেকনিশিয়ান আছেন তা জনসমক্ষে বা দর্শনীয় স্থানে প্রদর্শন করা জরুরি।

Categories