দক্ষিণ সুরমার সবকটি ইউনিয়নকে সিটি কর্পোরেশনে যুক্ত করতে আমি আগ্রহী- ড.মোমেন

প্রকাশিত: ৯:০৯ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২০

সিলেট-১ আসনের এমপি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘বর্তমান সরকার সর্বান্তকরণে নগরায়নে বিশ্বাসী। গ্রামের মানুষকে শহরমুখী হওয়া থেকে বিরত রাখতে হলে দেশের প্রতিটি গ্রামকে শহরের সুযোগ-সুবিধায় গড়ে তুলতে হবে। গ্রামে-ই মানুষের কাজের সংস্থান করে দিতে হবে। এ লক্ষ্যে সরকার নীতিগতভাবে নগরায়নে আন্তরিক। আর এই সুবাদেই যেখানে সিলেট সিটি কর্পোরেশন বর্ধিত করা হচ্ছে, সেখানে নগরের সুযোগ-সুবিধা ভোগকারী দক্ষিণ সুরমার প্রত্যেকটি ইউনিয়নকে সিটি কর্পোরেশনের সাথে সংযুক্ত করতে আমি খুবই আগ্রহী।’

বুধবার (১৯ আগস্ট) রাতে নগরীর ধোপাদিঘীর পাড়স্থ বাসভবনে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)’র আওতাধীন দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ১০টি ইউনিয়নকে সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভূক্তির দাবিতে সিলেটের সদর দক্ষিণ এলাকার ন্যায়সংগত দাবি আদায় ও সুষম উন্নয়ন তরান্বিত করার লক্ষ্যে গঠিত অরাজনৈতিক সংগঠন ‘সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি, সিলেট’র পক্ষ থেকে দেয়া স্মারকলিপি গ্রহণ করে ড. মোমেন এ কথা বলেন। একই দাবিতে জেলা প্রশাসক ও সিটি মেয়র বরাবরে দেয়া স্মারকলিপির বিষয়েও নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ মন্ত্রীকে অবহিত করেন।

জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘জনগণের এই যৌক্তিক দাবি মেনে নিলে সরকার লাভবান হবে। প্রচুর রাজস্ব আদায়ের পাশাপাশি এলাকার উন্নয়নও ত্বরান্বিত হবে। একই সঙ্গে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকারের নীতি-নির্ধারকদেরও দৃষ্টিভঙ্গি ও আগ্রহের সাযুজ্য থাকবে।’ তিনি এই জনদাবি বাস্তবায়নে সাধ্যানুযায়ী সচেষ্ট হবেন বলে নাগরিক কমিটি’র নেতৃবৃন্দকে আশ্বস্ত করেন।

‘সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি সিলেট’র সভাপতি ও মোল্লারগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ মোঃ মকন মিয়া এবং সাধারণ সম্পাদক ও সিটি কাউন্সিলর মোঃ আজম খান’র নেতৃত্বে এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের অন্যতম সহ-সভাপতি দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ সাইফুল আলম, দক্ষিণ সুরমা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি চঞ্চল মাহমুদ ফুলর, সহ-সাধারণ সম্পাদক গোলাম হাদী ছয়ফুল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর খান, শেখ মোঃ লায়েক মিয়া, অর্থ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুস ছত্তার, পূণর্বাসন সম্পাদক মোঃ নজরুল হোসেন, সহ-পরিবেশ সম্পাদক সাংবাদিক সাহাদ উদ্দিন দুলাল প্রমুখ।


Categories