জিজি চেয়ারম্যান আবু মারুফের কথা ও মিউজিকে নির্মিত হল”“সং অব দ্যা সেভেনথ মার্চ”।

প্রকাশিত: ৩:২৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১

সুনামগঞ্জ থেকে:
৭ই মার্চের গান- “সং অব দ্যা সেভেনথ মার্চ” কে বিশ্ববাসীর কাছে নিয়ে আসলো স্পটিফাই, অ্যামাজন মিউজিক এবং অ্যাপল মিউজিক সহ নামকরা সব মিউজিক স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম।

গানটি কথা ও মিউজিক নির্মান করেছেন জিজি গ্রুপের চেয়ারম্যান, উদীয়মান লেখক ও কবি,সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ এর কৃতি সন্তান আবু মারুফ। বর্তমানে তিনি লন্ডনের বেলিফার্মট স্কুলে “ইংরেজি এবং ক্রিয়েটিভ রাইটিং” শেখান। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে “রাইটিং ফর পারফরম্যান্স” প্রোগ্রামের একটি কোর্সের রিফ্লেক্টিভ টাস্ক করার সময় ইতিহাসভিত্তিক সৃজনশীল একটি সৃষ্টির খোঁজে যখন মগ্ন তখন একদিন কথা বলছিলেন কামাল আহমেদের সাথে যিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন পরীক্ষিত সৈনিক। কামাল তখন বলেছিলেন, “বঙ্গবন্ধু এবং ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ নিয়ে কি কিছু করা যায় না?” বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণটি জ্যাকব এফ ফিল্ড তার বিখ্যাত বই “উই শ্যাল ফাইট অন বিচেস: দ্য স্পিচেস দ্যাট ইনস্পায়ার হিস্ট্রি” তে অন্তর্ভুক্ত করেছেন, যেখানে লেখক গত ২৫০০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে প্রজ্জ্বলিত এবং অনুপ্রেরণামূলক যুদ্ধকালীন বক্তৃতাগুলি তালিকাভুক্ত করেছিলেন।

সেই কথোপকথন থেকেই আজকের এই “সং অভ দ্যা সেভেনথ মার্চ”!

গানটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চের ভাষণের উপর ভিত্তি করে নির্মিত হয়েছে। গানের কথা লিখা শুরু হওয়ার পর থেকেই খোঁজ শুরু হয় এইরকম ফোক এবং যুদ্বের উদ্দীপনা মূলক গায়কীর গলা। ইংরেজ গায়ক কার্লাইল লরেন্ট এই গান এবং বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানার পরে আবু মারুফের সাথে মিলে গানের কাঠামো তৈরি করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন ৭ই মার্চের আগে গানটি রেকর্ড করার লক্ষ্যে। গানটিতে বাদ্যযন্ত্র হিসাবে মূলতঃ মার্চিং ব্যান্ড পার্কাসশন, বেহালা, সেলো এবং বাঁশী ব্যবহার করা হয়েছে।

রেকর্ডিং এবং বিশ্বব্যাপী রিলিজের মুহূর্তে এগিয়ে আসে লন্ডনভিত্তিক রেকর্ডিং এন্ড পাবলিশিং হাউজ “ইমপার্টিং আইডিয়াজ”। পরের ঘটনা আপনাদের সামনে। বিশ্বব্যাপী গানটি রিলিজ হয়েছে ২৬ শে ফেব্রুয়ারী ২০২১ ইং। তাই আপনারা ৭ই মার্চ ২০২১ সালের আগেই গানটি পেয়ে যাবেন স্পটিফাই, অ্যামাজন মিউজিক এবং অ্যাপল মিউজিক সহ নামকরা সব মিউজিক প্লাটফর্ম গুলিতে। আর “ইমপার্টিং আইডিয়াজ” তো রইলো-ই, তাদের ইউটিউব চ্যানেলে গানটির প্রিমিয়ার হয়েছে ১ মার্চ।