ছাতকে টানা ৩য় দফায় বন্যা, দ্রুত বাড়ছে নদ-নদীর পানি

প্রকাশিত: ৮:০৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২১, ২০২০

ছাতক প্রতিনিধিঃ

সুনামগঞ্জের ছাতকে টানা ৩য় বারের মতো বন্যায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পুরো উপজেলার জনজীবন। একদিকে মহামারি করোনা ভাইরাস অপরদিকে বন্যা এ যেন মরার উপর খাঁড়ার ঘা।

মঙ্গলবার (২১জুলাই) দুপুর পর্যন্ত সুরমা নদীসহ সকল নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে। ইতিমধ্যে বন্যায় তলিয়ে গেছে এখানের বহু রাস্তাঘাট, ঘরবাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ শতাধিক একর বীজতলা। পৌরসভাসহ উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়ন বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে। বন্যার পানি ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তাঘাটসহ সর্বত্র তলিয়ে যাওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে এখানের সাধারণ মানুষ।

উজানে প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ি ঢলের কারনে সুরমা, চেলা, পিয়াইন, বটের খাল, বোকা, ডাউকি নদীসহ সবকটি নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের হিসেবে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত সুরমা নদীর পানি ছাতক পয়েন্টে বিপদসীমার ১৬০ সে.মি উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এখানের সবকটি নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।

ছাতকের সাথে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ মঙ্গলবার সকাল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। উপজেলা সদরের সাথে ১৩টি ইউনিয়নের সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের নয়া লম্বাহাটি গ্রামের জহর আলী জানান, ২০দিন ভিতরে ৩টি বড়-বড় বন্যা হওয়ায় একেবারে দিশেহারা হয়েগেছি। আগের দুই বন্যার পানিও ঘরে ছিলো। আজকে আবার নতুন করে বন্যার পানি ঘরে ডুকে পড়েছে। চরম দুর্ভোগে খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো গোলাম কবির জানান, কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে। কনট্রোল রুমের মাধ্যমে বন্যার সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।


Categories