“ছাতকে অভিনব পন্থায় ৩ টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি”

প্রকাশিত: ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

ছাতকে অভিনব পন্থায় ৩ টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি।

সুনামগঞ্জের ছাতকের গোবন্দিগঞ্জে অভিনব পন্থায় ৩টি স্বর্ণের দোকান ও একটি ফার্মেসীতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। গোবিন্দগাঞ্জ নতুন বাজারের গলিতে থাকা দু’জন নৈশপ্রহরীকে মারধর করে ও হাত-পা বেঁধে রেখে, দোকানগুলোর তালা ভেঙ্গে নগদ অর্থসহ প্রায় আড়াই লক্ষ টাকার রুপা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়েছে সংঘবন্ধ ডাকাত চক্র। মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ২টার দিকে এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মো.শাহ আলমের “রকি জুয়লোস” থেকে ৬০ ভরি রুপা,১২ আনা স্বর্ণ ও নগদ ১৩ হাজার টাকা।মিলন ধরের “মিলন জুয়েলার্স” থেকে ২০ ভরি রুপা, ১৪ আনা স্বর্ণ, সুমন দে’র “দূর্গা জুয়েলার্স” থেকে ৬ ভরি রুপা, ১ আনা স্বর্ণ ও নগদ ৫ হাজার টাকাসহ সর্বমোট প্রায় আড়াই লাখ টাকার স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায় সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্র। রঞ্জন রায়ের মেসার্স মমতা মেডিকেল হলের  তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে টাকা পয়সা না পেয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে যায় ডাকাত চক্র।
এ দিকে বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন, এসএপি সার্কেল (ছাতক) বিল্লাল হোসেন, ছাতক থানার অফসিার ইনর্চাজ (ভারপ্রাপ্ত) মিজানুর রহমান, সেকেন্ড অফিসার এসআই হাববিুর রহমান (পিপিএম)।
বাজার গলির নৈশ্য প্রহরী উকিল আলী ও আফাজ উদ্দিন জানান, ৮-১০ জনের সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্র তাদেরকে মারধর করে আহত করে। পরে হাত-পা বেঁধে রেখে পর পর দোকানগুলোর তালা ভেঙ্গে মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। বুধবার সকালে দুই নৈশপ্রহরী স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ছাতক থানার অফসিার ইনর্চাজ (ভারপ্রাপ্ত) মিজানুর রহমান বলেন,পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। জড়িতদের গ্রেফতারের করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Categories