চিতলমারী‌তে ক‌রোনায় দি‌শেহারা লক্ষা‌ধিক সব‌জি চ‌া‌ষি

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০

ব্রজেন রায়, চিতলমারী, বাগেরহাটঃ
বাগেরহাটের চিতলমারীতে করোনা প্রাদুর্ভাবের কারনে সবজি বিক্রয়ের চিন্তায় দিশেহারা কয়েক হাজার সবজি চাষি। এ উপজেলার ১২০০ হেক্টর আবাদি জমিতে প্রায় ৭০ হাজার কৃষক শীতকালে টমেটো, ফুলকপি, ওলকপি এবং বর্ষাকালে শসা, কুমড়া, নাপা, করলা, ঝিঙা চাষ করেন। এসব তরকারি স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে ঢাকা, খুলনা, বরিশালসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে রপ্তানি করা হয়। কিন্তু এবার করোনা প্রাদুর্ভাবের কারনে সেই রপ্তানি নিয়ে তাদের কপালে চিন্তার ভাজ তৈরি হয়েছে। কারন তরকারি রপ্তানি না হলে তাদের অনেক লোকসান হবে। উপজেলার চরবানিয়ারী গ্রামের কৃষক মৃনাল কান্তি বাড়ৈর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার ২ একর জমিতে চাষ করতে প্রায় দুই লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে। এখন যদি সবজি বেচতে না পারি তাহলে আমার ডাহা লোকসান হবে। সকল চাষিদের একই আশংকা। এ ব‌্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনের প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করলে জানান, স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে পাইকারী বাজার বসানোর ব‌্যবস্থা করা হচ্ছে। চাষিরা যাতে তাদের সবজি ন‌্যায‌্য দামে বিক্রয় করতে পারে সে চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রয়োজনে প্রতি ওয়ার্ডে দুই থেকে তিনটি জায়গা নির্ধারিত করা হবে যেখানে চাষিরা সবজি বিক্রয় করতে পারবে।


Categories