খুলনা মহানগরীতে চলছে এজেন্ট কর্তৃক বিকাশ প্রতারণার ফাঁদ।

প্রকাশিত: ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০২১

মোঃ মিজানুর রহমান খুলনা জেলা প্রতিনিধি।

খুলনা মহানগরীতে চলছে এজেন্ট কর্তৃক বিকাশ প্রতারণার ফাঁদ। 

বিকাশ প্রতারক হতে সাবধান। আজ খুলনা মহানগরীতে খুলনা রেলওয়ে স্টেশন পাওয়ার হাউজ মোড়ে একটি এজেন্টের দোকান থেকে এক ভদ্রলোক যিনি বিশ্ব ইসলাম মিশন দাখিল মাদ্রাসা রেল স্টেশন খুলনা ওই মাদ্রাসার একজন সহকারী মৌলভী।
মাওলানা শওকত আলী। তিনি তার ছেলের জন্য টাকা পাঠাতে যান ওই এজেন্টের কাছে । আনুমানিক বেলা দুইটার দিকে। তার ছেলেকে ২০৪০ টাকা বিকাশ করে পাঠায়। এস এম মাওলানা শওকত আলী জানান, আমার ছেলে মোঃ সাইফুদ্দিন শেখ ঢাকা ইউনিভার্সিটি তে পড়াশোনা করে সে এবার এমবিএ ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র। সে ঢাকায় থেকে পড়াশোনা করে। তাই তাকে আমার প্রায়ই টাকা পাঠাতে হয়। এর আগেও কয়েকবার বিভিন্ন জায়গা থেকে ধোকা খেয়েছি।
আজ ছেলের ফোন পেয়ে তার জরুরী টাকার প্রয়োজন তাই তাকে আমি মাদ্রাসা থেকে ফেরার পথে পাওয়ার হাউস স্টেশন থেকে বাজারের দিকে যেতে ডান হাতে যে এজেন্টের দোকান ওখান থেকে আমি ২০৪০ টাকা আমার ছেলেকে বিকাশ করে পাঠাই। টাকা পাঠানোর কিছুক্ষনের ভিতর একটা অপরিচিত নাম্বার থেকে আমার ছেলেকে ফোন করে সেই নাম্বারটি হল, ০১৮৮৪৭৮৩২২৭ এই নাম্বারে ফোন করে আমার ছেলেকে বলে এই মাত্র ২০৪০ টকা তোমার মোবাইলে গেছে। এখন তোমার ওই টাকাটা যদি তুমি তুলে নিতে চাও তাহলে তোমার পাসওয়ার্ডটি বল । সে বলতে রাজি নয়, তখন বলে যে তোমার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে। একাউন্ট একটিভ করতে চাইলে তোমার পাসওয়ার্ডটি বল। কিন্তু সে শিক্ষিত ছেলে বিদায় পাসওয়ার্ডটা বলে নাই ।তারপর ওই নাম্বার বন্ধ।
যে এজেন্টের কাছ থেকে টাকা পাঠিয়েছে সেই বিকাশ এজেন্ট নাম্বারটি হল ০১৯৭২-৫০৬৬৫৫ । ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে, জানা গেল নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলল এই দোকান থেকে নাকি সে আগেও ৫০০০ টাকা দিয়ে একবার প্রতারণার শিকার হয়েছে । আরো অনেকেই বলল আব্দুল করিম নামের একজন বলল যিনি এই এজেন্ট তিনি এর সাথে জড়িত আছে এবং এই লোক এই নাম্বারটি প্রতারক চক্রের কাছে পাঠিয়ে দেয় ,তার কিছুক্ষনের ভিতর ফোন দিয়ে এভাবে হতদরিদ্র গরিব মানুষদের কাছ থেকে হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে।
বিষয়টি কেএমপি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি । এদেরকে আইনের আওতায় এনে এর কাছ থেকে তথ্য বের করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার। এবং এই এজেন্টকে বিকাশ কর্তৃপক্ষ যেন তার  এজেন্ট বন্ধ করে দেয়। তার সুব্যবস্থা করতে বিকাশ কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানাচ্ছি। আর প্রশাসনকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করা গেল।  বিকাশ লেনদেন করা থেকে সকলেই সতর্ক থাকবেন।


Categories