করোনা যুদ্ধে হেরে গেলেন মোঃ নাসিম

প্রকাশিত: ৯:৩২ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২০
মোহাম্মদ নাসিম- ফাইল ছবি

অনেক যুদ্ধের বিজয়ী নায়ক শেষ পর্যন্ত করোনার কাছে হেরে গিয়ে আশ্রয় নিলেন মহান সৃষ্টিকর্তার দরবারে। ১৩ জুন, শনিবার  বেলা ১১টা ১০ মিনিটে জাতীয় চার নেতার অন্যতম ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলীর ছেলে, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী, প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম এমপি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহে ………রাজেউন)।

টানা প্রায় দুই সপ্তাহ রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিমকে রবিবার (১৪ জুন) সকালে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। দাফনের আগে তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে তানভীর শাকিল জয় শনিবার দুপুরে হাসপাতালের সামনে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছিলেন, বনানী কবরস্থানে মোহাম্মদ নাসিমকে দাফন করা হবে। করোনাভাইরাসের কারণে জনগণের স্বাস্থ্যবিধি ও স্বাস্থ্যসচেতনতার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে তার মরদেহ সিরাজগঞ্জে নেওয়া হচ্ছে না।

রক্তচাপজনিত সমস্যা নিয়ে ১ জুন হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। ওই দিনই তার দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর ৪ জুন অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও ৫ জুন ভোরে তিনি স্ট্রোক করেন। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণে দ্রুত অস্ত্রোপচার করে তাকে আই-সিইউতে রাখা হয়। এরপর দুই দফায় ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রাখে মেডিকেল বোর্ড। কয়েকদিন স্থিতিশীল থাকলেও গত বৃহস্পতি- বার রক্তচাপ অস্বাভাবিক ওঠানামা করতে থাকে জনাব নাসিমের। এরপর শনিবার হৃদ্‌যন্ত্রে জটিলতা দেখা দিলে তাকে বাচাঁনোর আশা ক্ষীণ হয়ে আসে।

মোহাম্মদ নাসিম এমপির মৃত্যুতে মাননীয় রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় স্পীকারসহ সমাজের বিশিষ্টজনেরা শোক বার্তা দিয়েছেন।