করোনা আমাদের জীবন-যাপনের কৌশল পরিবর্তনের শিক্ষা

প্রকাশিত: ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০
করোনার শিক্ষা
বর্তমান দুনিয়ার সবচেয়ে বড় আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস।অর্থনীতির জাদরেল দেশগুলো ইতোমধ্যেই করোনাভাইরাসের ভয়াল ছোবলে পড়ে কপোকাত হয়ে গেছে।উত্তরমেরু থেকে দক্ষিণমেরু পৃথিবীর এমন কোন দেশ নেই যেখানে নোভেল করোনভাইরাস হানা দেয়নি।বস্তুতঃ পৃথিবী নামক গ্রহটির উপর মানুষের যে লাগামহীন অবর্ণনীয় নিপীড়ন চলে আসছে যুগের পর যুগ পৃথিবী যেন আজ তারই প্রতিবাদে প্রকৃতিক প্রতিশোধের নেশায় উম্মাতাল।এই পৃথিবীর সবকিছুই হয়তো মানুষের ভোগের জন্য।কিন্তু মানুষ ভোগ-বিলাসে এত বেশি বেসামাল হয়ে উঠেছে যে পৃথিবীর পক্ষে তা সহ্য করে নেওয়া সম্ভব হয়ে উঠছে না।ব্যাপারটা অনেকটা দেয়ালে পিঠ লেগে যাওয়ার মত।আর তাই যেন পৃথিবী তার উল্টো প্রতিক্রিয়া দেখাতে শুরু করেছে।একে নিউটনের তৃতীয় গতি সূত্রের সাথে তুলনা করা চলে-যেখানে তিনি বলেছিলেন, “প্রত্যেক ক্রিয়ারই একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছে।”
    এই করোনা সংক্রমণ আমাদের অনেক কিছুই শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছে।ভোগ-বিলাসে মত্ত্ব সমাজের উঁচুতলার  মানুষ যারা কৃত্রিম জীবন যাপনে অভ্যস্থ, প্রকৃতির সাথে যাদের সম্পর্ক নেই,যারা হাইব্রীড জীবন যাপনে অভ্যস্থ তারাই যেন করোনাভাইরাসের মূল টার্গেট।আরও একটি লক্ষ্যণীয় ব্যাপার হল,তৃতীয় বিশ্বের অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল দেশগুলো এখনও পর্যন্ত অপেক্ষাকৃত ভাল আছে।অন্যদিকে যাদের বাসায় এ,সি, গাড়ীতে এ,সি, অফিসে এ,সি, তারা হতদরিদ্র বস্তিবাসী বা গ্রাম বাংলায় বসবাসকারী মানুষের তুলনায় অনেক বেশি আক্রান্ত হচ্ছে।যারা রোদে পুড়ে,বৃষ্টিতে ভিজে মাঠে-ময়দানে কাজ করে যাচ্ছে তারাই এখন পর্যন্ত ভাল আছে। তাই করোনাভাইরাসের এমন আচরণ থেকে আমাদের জীবন-যাপনের কৌশল পরিবর্তনের শিক্ষা গ্রহন করতে হবে বলেই মনে করি।
লেখক: মিঞা মোহাম্মদ এলাহি
প্রভাষক
আব্দুস সাত্তার ডিগ্রি কলেজ