করোনা আক্রান্ত দেশ ও অর্থনীতি :  উত্তরণের সম্ভাব্য  রূপরেখা।

প্রকাশিত: ৩:৫১ অপরাহ্ণ, জুন ১৯, ২০২০

মো. আশরাফুল লতিফ ( তুহিন) : ব্রাহ্মণবাড়িয়া: :

করোনায় আক্রান্ত বিপন্ন মানবতা ও স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশের অাক্রান্ত অর্থনীতি নিয়ে কথা বলছিলাম বন্ধু ডাক্তার রতীন্দ্র নাথ মন্ডল,
এম বি বি এস; এফ সি পি এস (মেডিসিন)
মেডিসিন বিশেষজ্ঞ,রংপুর স্পেশালাইজড হসপিটাল।প্রতিষ্ঠাতা- ডাক্তারখানা।

তাকে প্রশ্ন করেছিলাম, “বর্তমানে যেভাবে দেশ চলছে, এভাবে চলতে থাকলে দেশ  করোনামুক্ত হবার সম্ভাবনা অাছে কি ? অার দেশের অর্থনীতি কি বাঁচবে ? “

তার সোজাসোজি উত্তর, “আমার মনে হয় না। “

তবে এক্ষেত্রে তার কিছু নিজস্ব ভাবনা তিনি পাঠকদের সাথে শেয়ার করেছেন। যা হুবহু দৈনিক অামাদের ফোরামে’র পাঠকদের তুলে ধরা হল :

১। দেশের অফিসগুলো শতভাগ স্টাফ দিয়ে চলছে না। পরিবহন খাত আশানুরুপ যাত্রী পাচ্ছে না।দোকানগুলো যে খুব বেশি  কাস্টমার পাচ্ছে এমন নয় ( কিছু ব্যতিক্রম)। এভাবে চলতে থাকলে দেশের অর্থনীতি বাঁচবে না। অর্থনীতি বাঁচাতে গেলে মানুষকে ঘর থেকে বের করতে হবে। যাতে করে করোনা পূর্ববর্তী সময়ের মত করে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারে, তবেই অর্থনীতির চাকা সচল হবে।

২।একটা মাস পুরোদেশ কারফিউ দিয়ে বন্ধ করে দিন।প্রতিটি সরকারী, বেসরকারী হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিককে নিদিষ্ট জায়গার দায়িত্ব দিন, তারা ওই এলাকার সবার Rapid ডায়াগন্সটিক কিট দিয়ে এন্টি বডি দেখবে।‍

৩।কারফিউ এর সময়ের মধ্যে সবার টেস্ট সম্পন্ন করতে হবে। যাদের লক্ষন থাকবে তাদের পিসিআর করতে হবে।

৪।সব রোগীর  চিকিৎসা হবে টেলিমেডিসিন দিয়ে। শুধুমাত্র যারা বেশি অসুস্থ তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে হবে।
৫। গরীব মানুষদের কি হবে? তারা কিভাবে খাবে? প্রতিটি ওয়ার্ড কমিশনার/ মেম্বার এর কাছ থেকে লিস্ট নিতে হবে, এই এক মাস কাদেরকে খাবার সাপ্লাই দিতে হবে। প্রয়োজনে সেনাবাহিনী,পুলিশ ও গ্রাম পুলিশের যৌথ টিম গঠন করে,সেটি তদারকি করতে হবে।
৬। প্রতি জেলায় আইসিইউ না করে সেই টাকা উপরোক্ত  (১- ৫ পর্যন্ত) পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নে ব্যয় করুক কারণ এতগুলো আই সি ইউ চালানর মত স্টাফ আমাদের নেই। আর আই সি ইউ এর কার্যকারিতাও এত ভালো না।
৭।প্রতি এলাকার সচ্ছল ব্যক্তিরা তার এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াবে।
৮।এক মাস পর সব খুলে দিন দেখবেন সব ঠিক হয়ে যাবে এবং অর্থনীতিও ঘুরে দাঁড়াবে।

আর বর্তমানে যেভাবে চলছে তাতে করে স্বাস্হ মন্ত্রনালয়ের ডিজি মহদয়ের কথা মত করোনা ২/৩ বছর থাকবে। মানুষও ঘরে লুকিয়ে থাকবে ; আর অর্থনীতিও খুড়িয়ে খুড়িয়ে চলবে।

আমাদের সরকারের ১০০% সক্ষমতা  আছে এই কাজ গুলো করার। দরকার শুধু উদ্যোগ নেবার। এদেশের বেশির ভাগ মানুষ ভালো, সবাই এই কাজে সাহায্য করবে। দেশ আগের জায়গায় ফিরে যাবে এবং আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, অামরা একটি করোনামুক্ত পূর্বের ন্যায় অর্থনীতির একটি দেশ দেখব।সবাই নিরাপদ ও সুস্থ থাকুন।


Categories