করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় বিশ্বে ভারত এখন চতুর্থ

প্রকাশিত: ১:৪০ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০২০
ছবি: এনডিটিভি

যুক্তরাজ্যকে পেছনে ফেলে কভিড-১৯ বা নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যায় বিশ্বের চতুর্থ দেশ এখন ভারত। অর্থাৎ যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল ও রাশিয়ার পরই আক্রান্তের সংখ্যা বিবেচনায় ভারতের অবস্থান। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ ১০ হাজারের বেশি মানুষের শরীরে ভাইরাসের জীবাণু মিলেছে।

শুক্রবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১০ হাজার ৯৫৬ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই প্রথম দেশটিতে একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়াল। সবমিলিয়ে ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৯৭ হাজার ৫৩৫ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৯৬ জন। একদিনে এ মৃত্যুর হার সর্বোচ্চ। দেশটিতে ভাইরাসজনিত কারণে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে আট হাজার ৪৯৮ জনে।

গত কয়েকদিন ধরে মুম্বাই এবং দিল্লিতে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে আশঙ্কাজনক হারে। তারপরও বৃহস্পতিবার দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণের পর্যায়ে পৌঁছায়নি ভারত।

মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু ও দিল্লিতে সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি। মৃতের সংখ্যাও এ রাজ্যগুলোতে বেশি। মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৬০৭ জন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১৫২ জনের। রাজ্যটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৭ হাজার ছাড়িয়েছে। তাদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি মুম্বাইয়ের বাসিন্দা।

তামিলনাড়ুতে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ছাড়িয়েছে। অন্যদিকে দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩৫ হাজার।

পশ্চিমবঙ্গেও বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজ্যটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৪০ জন নতুন করে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৭৬৮ জনে। মোট মৃত্যু হয়েছে ৪৪২ জনের।

আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়লেও সুস্থ্য হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যাও ভারতে বেশি। এখন পর্যন্ত এক লাখ ৪৭ হাজার ১৯৫ জন করোনাভাইরাস জয় করেছেন।

ভারতে এখন পর্যন্ত ৫৩ লাখ ৬৩ হাজার ৪৪৫ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এক লাখ ৫০ হাজার ৩০৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার দাবি করেছে, দেশব্যাপী লকডাউনে সংক্রমণ রোধে সুফলতা মিলেছে। ৮৩ জেলায় সংক্রমণের হার এখনও এক শতাংশের নীচে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় বর্তমানে বিশ্বে প্রথম অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে ২০ লাখ ৮৯ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ১৬ হাজার মানুষের। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে আক্রান্তের সংখ্যা আট লাখ ছাড়িয়েছে। দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৪১ হাজার মানুষের। রাশিয়া রয়েছে তৃতীয় স্থানে। দেশটিতে পাঁচ লাখ মানুষ আক্রান্ত এবং সাড়ে ছয় হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।