করোনার এ মহাদুর্যোগের মাঝে মানবিকতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত-মার্জান

প্রকাশিত: ১২:২০ অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০

নাসিরনগর থানার পুলিশ সদস্যবৃন্দ করোনার শুরু থেকেই নাসিরনগর উপজেলাকে করোনামুক্ত রাখার জন্য কিংবা করোনা আক্রান্ত রোগীদের বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতা করছিলেন। উপজেলার জনগণ নাসিরনগরের পুলিশ বাহিনীকে বাহবা দিচ্ছিলেন। কিন্ত বিগত কয়েকদিনে থানার কয়েকজন পুলিশ আক্রান্ত হলে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

করোনা আক্রান্ত ৭ জন পুলিশ সদস্যকে নিজের চারতলা ভবনে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন নাসিরনগর সদর ইউনিয়নের ছাত্রলীগের নিবেদিত কর্মী মার্জান। বিনা ভাড়ায় তার চারতলা ভবনের ৮টি কক্ষে পুলিশ সদস্যদের থাকার ব্যবস্থা করে এক অনন্য নজির সৃষ্টি করেছেন।
মার্জান ইংরেজি সাহিত্যে স্নাতক করেছেন বেসরকারী ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি থেকে। বর্তমানে করোনার কারণে এলাকায় অবস্থান করছেন। চারতলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় নিজের পরিবার নিয়ে থাকেন মার্জান। যে ৮টি কক্ষে করোনা আক্রান্ত পুলিশ সদ্যদের থাকতে দিয়েছেন সেটা থেকে ভাড়া পেতেন ২০ হাজার টাকা।
দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে পুলিশ বাহিনীর পাশে দাড়াতে পেরে খুবই আনন্দিত বলে জানান মার্জান। এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ওয়াজ্জেল চৌধুরী তার মামা। দেশের এ দুর্যোগের সময় অসহায় গরীব পাঁচ শতাধিক পরিবারের মাঝে তিনি খাবার বিতরণ করেছেন বলে জানা যায়।

আব্দুল হক

সহকারী অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ

নাসিরনগর সরকারী কলেজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া.