“এখ‌নো ভা‌লো মানুষ আ‌ছেন”

প্রকাশিত: ৯:৫৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২০
                                জনাব জ‌হিরুল ইসলাম

এখ‌নো ভা‌লো মানুষ আ‌ছেন।

আমার এনড্র‌য়েড মোবাইল‌টি গতকাল হা‌রিয়ে ফে‌লি গ্রীন লাইফ হাসপাতাল, ঢাকায়।
পে‌য়ে‌ছি‌লেন জহিরুল ইসলাম না‌মে একজন সজ্জন ব্য‌ক্তি। তাঁর বা‌ড়ি নারায়ণগ‌ঞ্জের রূপগঞ্জস্থ ইছাপুরায়। অ‌নেক ক‌ষ্টে যোগা‌যো‌গের পর, তি‌নি বল‌লেন, ‘আপনার জ‌ন্যে অ‌নেক অ‌পেক্ষা ক‌রে বাড়ি চ‌লে এ‌সে‌ছি আমার অসুস্থ বাবা‌কে নি‌য়ে।’
মোবাইলটা আ‌মি বন্ধ ক‌রি‌নি যোগা‌যো‌গের স্বা‌র্থে। আপনি মোইল‌টি এসে নি‌য়ে যান।’ আ‌মি কো‌রিল বিশ্ব‌রোড হ‌য়ে গেলাম নিলামা‌র্কেট, সেখান থে‌কে ইছাপুরা বাজার। ওখা‌নে গিয়ে মহৎ মানুষ‌টির দেখা পেলাম। তি‌নি দেখামাত্রই  আমা‌কে আ‌গে  চা-নাস্তা খাওয়া‌লেন। দুপু‌রের খাবার খাওয়ার জ‌ন্যে যথেষ্ট পিড়া‌পি‌ড়ি কর‌লেন।
তাঁর ভদ্রতা দে‌খে আ‌মি তা‌ঁকে ধন্যবাদ জানা‌নো ব্যতীত অন্য‌কোন সৌজন্য প্রদর্শ‌নের সাহস করলাম না।
ইছাপুরা গ্রাম খুব সুন্দর। ম‌নোরম নৈস‌র্গিক শোভায় শো‌ভিত। আ‌ছে হ্রদ, নদী। চল‌ছে গ্রাম থে‌কে নগরা‌য়নের প্র‌ক্রিয়া। চারধা‌রেই একটা ভা‌লো লাগার আবহ আ‌ছে। ম‌নে হ‌লো এগাঁ‌য়ের মানুষগু‌লো প্রকৃ‌তির ম‌তোই অকপট। তি‌নি আমার মোবাইল সেটটা আমার হা‌তে দি‌য়ে বল‌লেন, ‘ও‌পেন ক‌রেন’ আ‌মি করলাম।
গত ১৪ মার্চ ২০১৮, আমার মা‌য়ের জানাজার ভি‌ড়ে কে যেন আমার মোবাইল সেটটা প‌কেট থে‌কে অবলীলায় নি‌য়ে গে‌লো। ভাবলাম কেউ হাত চা‌লি‌য়ে নি‌য়ে যায়, কেউ হা‌তে পে‌য়ে ফরত দি‌তে উ‌দ্বেল।
ভদ্র‌লোক আমা‌কে রিক্সায় উ‌ঠি‌য়ে বিদায় জানান। আ‌মি তাঁ‌কে আমা‌দের এলাকায় বেড়া‌নোর জন্য স‌বিনয় অনু‌রোধ জা‌নি‌য়ে বিদায় নিলাম।
ভা‌লো থাকুন, জনাব জ‌হিরুল ইসলাম। আ‌মি আপনা‌কে কখ‌নো ভুলব না। না, আমার ক‌য়েক‌টি টাকার মোবাই‌লের জন্য নয়, আপনার সততার জন্য।
মহান আল্লাহ আপনার এবং আপনার বাবাসহ প‌রিবার প‌রিজনের মঙ্গল করুন।
মৃধা কামাল, অধ্যক্ষ, সরাইল সরকারী কলেজ। সরাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

Categories