“একে একে অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদের মোট ছয়টি জামাত”

প্রকাশিত: ১১:২৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১, ২০২০

বাংলাদেশের  জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদের মোট ছয়টি জামাত। আজ শনিবার সকাল ৭টায় যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এর মাধ্যমে দেশে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এর পর পর্যায়ক্রমে বাকি পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাতের ইমামতি করেন মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মো. মিজানুর রহমান। এতে মুকাব্বির হিসেবে ছিলেন মসজিদের মুয়াজ্জিন হাফেজ ক্বারী কাজী মাসুদুর রহমান।

নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরিস্থিতির মধ্যে উদযাপিত হচ্ছে এবারের কোরবানির ঈদ। তাই বায়তুল মোকাররম মসজিদের প্রবেশ পথে বসানো হয়েছে জীবাণুনাশক স্প্রে বুথ। এছাড়া জামাত শুরুর আগে মসজিদের মাইক থেকে বার বার ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের অনুরোধ করা হয়, তারা যেনো যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজে অংশ নেন। হাতে গুণা অল্প কিছু মুসল্লি ছাড়া অধিকাংশ মুসল্লিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই নামাজে অংশ নিতে দেখা গেছে।

নামাজ শেষে মুসল্লিরা মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে মোনাজাত করেন এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় প্রার্থনা করেন। তবে করোনার কারণে এ ঈদেও মুসল্লিরা নামাজ শেষে কোলাকুলি ও করমর্দন থেকে বিরত থাকেন।

eid prayer bd 

ঈদের প্রধান জামাত উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় নিরাপত্তা বলয়ও ছিলো চোখে পড়ার মতো। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মুসল্লিদের নিরাপত্তার সার্বিক দায়িত্ব পালন করেন।

প্রথম জামাতের পর আরো পাঁচটি জামাত পর্যায়ক্রমে বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে জাতীয় মসজিদে ঈদের দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী এবং মুকাব্বির হিসেবে ছিলেন মসজিদের মুয়াজ্জিন হাফেজ ক্বারী হাবিবুর রহমান মেশকাত।

এরপর সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় ঈদের তৃতীয় জামাত। এতে ইমামতি করেন মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক এবং মুকাব্বির হিসেবে ছিলেন মসজিদের মুয়াজ্জিন মাওলানা ইসহাক।

সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় ঈদের চতুর্থ জামাত। এতে ইমামতি করেন জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মহিউদ্দিন কাসেম এবং মুকাব্বির হিসেবে ছিলেন মসজিদের চিফ খাদেম মো. শহীদুল্লাহ।

এছাড়া সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় মসজিদে অনুষ্ঠিত হয় ঈদের পঞ্চম জামাত। এতে ইমামতি করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) মুহাদ্দিস হাফেজ মাওলানা ওয়ালিয়ূর রহমান খান এবং মুকাব্বির হিসেবে ছিলেন মসজিদের খাদেম হাফেজ মো. আব্দুল মান্নান।

এরপর বেলা ১১টা ১০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় ঈদের ষষ্ঠ ও সর্বশেষে জামাত। এতে ইমামতি করেন ইফার সাবেক উপ-পরিচালক মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রব মিয়া এবং মুকাব্বির হিসেবে ছিলেন মসজিদের খাদেম হাফেজ মো. আব্দুর রাজ্জাক।


Categories