একই রশিতে স্বামী ও অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী’র ঝুলন্ত লাশ, পাশে চিরকুট

প্রকাশিত: ৬:১৩ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় একই রশিতে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেখানে পাওয়া একটি চিরকুটে তারা আত্মহত্যা করেছেন বলে লিখা ছিল। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় লেহেম্বা ইউনিয়নের চাপোড় পার্বতীপুর গ্রামের নিজ বাড়ির শয়ন কক্ষ থেকে তাদের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানান রাণীশংকৈল থানার ওসি আব্দুল মান্নান।

মৃত বিপুল কুমার রায় (২৩) ও পারুল রাণী (২০) চাপোড় পার্বতীপুর গ্রামের বাসিন্দা। এক বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। বিপুল দর্জি পেশায় নিয়োজিত ছিলেন।

পরিবারের বরাতে ওসি আব্দুল মান্নান বলেন, ‘সোমবার রাতে বিপুল ও পারুল খাওয়া-দাওয়া করে নিজেদের ঘরে ঘুমাতে যান। মঙ্গলবার ভোরে বিপুল রায়ের পালক মা মিমিতা বালা তাদের ঘুম থেকে ওঠাতে ডাকতে যান। কিন্তু সাড়া না পেয়ে দরজার ফাঁক দিয়ে বিপুল ও পারুলকে ঝুলতে অবস্থায় দেখতে পান। তখন তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন।’

মা মিমিতা বালা বলেন, ‘বউমা সাত মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা ছিল। কী কারণে তারা আত্মহত্যা করেছে বুঝতে পারছি না।’

এদিকে, এই দম্পতির লাশের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। যেখানে লিখা ছিল, ‘আমাদের মৃত্যুর কারণ কেউ নয়। আমরা নিজেদের ইচ্ছায় মৃত্যুবরণ করেছি।’

ওসি আব্দুল মান্না জানান, মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট করার সময় এই দম্পতির শরীর থেকে কীটনাশকের গন্ধ পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, তারা প্রথমে কীটনাশক পান করে পরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত কিছু বলা যাচ্ছে না, তদন্ত চলছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান রাণীশংকৈল থানার ওসি।