“ইউএনও, এ্যাসিল্যান্ড একই সাথে বদলী-শিবপুরে বালু দস্যু,পাহাড়, টিলা কাটা খেকোরা তৎপর” 

প্রকাশিত: ১:৪৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০২০
আসাদুজ্জামান-শিবপুর (নরসিংদী) সংবাদদাতা।

ইউএনও, এ্যাসিল্যান্ড একই সাথে বদলী- শিবপুরে বালু দস্যু, পাহাড়, টিলা কাটা খেকোরা তৎপর। 

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ হুমায়ুন কবীর ও সহকারি কমিশনার ভূমি মুনমুন জাহান লিজা একই সাথে বদলি হয়েছেন। তাদের এই  বদলীর সুযোগে শিবপুর উপজেলার বালু দস্যু,  পাহাড় ও টিলা কাটা খেকোরা তৎপর হয়ে উঠেছে।  গত প্রায় পনের মাস যাবৎ শিবপুরে বালু উত্তোলন, পাহাড়, টিলা  বন্ধ রয়েছে। এর পূর্বে এলাকায় কতিপয় সমাজপতিদের সহযোগিতায় ও রাজনৈতিক  ছত্রছায়ায় থেকে মোটা অংকের টাকা লেনদেনের মাধ্যমে অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা হয়েছিল।
এলাকার  বিজ্ঞ ও সচেতন মহলের আবেদনে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জহিরুল হক ভূইয়া মোহন, জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন মহোদয়ের নির্দেশে শিবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ হুমায়ুন কবীর ও সহকারী কমিশনার ভূমি মুনমুন জাহান লিজা যৌথ প্রচেষ্টায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা কাটা বন্ধ  করতে সক্ষম হয়েছেন।
এজন্য শিবপুরবাসী তাদেরকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। প্রশংসিত হয়েছেন শিবপুরের সর্বমহল থেকে। যখনই শিবপুর উপজেলার যে কোন স্থানে বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা কাটার খবর পেয়েছেন তৎক্ষনাৎ সময় ক্ষেপন না করে তারা ছুটে যান ঘটনাস্থলে। বন্ধ করে দেন তাদের অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা কাটা।
এরই মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার ভূমি মুনমুন জাহান লিজার একই সময়ে বদলী হওয়ার সুযোগে ঐ বালু উত্তোলনকারী দস্যুরা, পাহাড় ও টিলা কাটা খেকোরা তৎপর হয়ে উঠেছেন। রাতের আধারে ও দিনের বেলায় চুরি করে বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা কাটা শুরু করেছেন। এলাকাবাসীর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট  দাবী শিবপুরে যেন কোন ভাবেই বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা কাটা না হয়।
শিবপুরের  সচেতন মহল মনে করেন পৃর্বের মত নবাগত ইউএনও, এ্যাসিল্যান্ড ও শিবপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শিবপুরে বালু উত্তোলন, পাহাড় ও টিলা কাটতে দিবেন না। আর যদি তা করতে না পারেন তাহলে শিবপুরের জনগন মনে করবে আপনারা প্রভাবিত হয়েছেন। যার জন্য জাতি লজ্জিত হবেন।

Categories