“আমরা মুরাদনগর উপজেলার জনগণ” পক্ষ থেকে বিভিন্ন মাদরাসা ও দুস্থ পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ।

প্রকাশিত: ৩:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২১

মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, মুরাদনগর,কুমিল্লা।

“আমরা মুরাদনগর উপজেলার জনগণ” পক্ষ থেকে বিভিন্ন মাদরাসা ও দুস্থ পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ।

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার ১৮ টি মাদ্রাসা ও দুস্থ পরিবারের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে পান্ডুঘর সামসুদ্দিন আহাম্মেদ ভূঁইয়া উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ‘আমরা মুরাদনগর উপজেলার জনগণ’ (আমুউজ) সংগঠনের উদ্যােগে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।
আমুউজ সংগঠনের সভাপতি এইচ. এম. হাবিবুল্লাহ সোহেল এর সভাপতিত্বে ও পীরজাদা মোঃ গোলাম জিলানীর পরিচালনায় কম্বল বিতরনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক মোঃ শাহজাহান ভূইয়া, রেজাউল করিম ভূইয়া, শফিকুল ইসলাম মৃধা, সহকারি শিক্ষক খাইরুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, আউমুজ সংগঠনের  সামছুল আলম (সুমন), মোঃ রহমতউল্লাহ্ আল ফয়সাল, এম কে আই জাবেদ, মুকসেদুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, মোঃ নাজিম উদ্দিন, সাইফ আব্দুল্লাহ, ইয়াছিন আম্মেদ জয়, রাসেল ভূইয়া, এ এস আরিফুল ইসলাম, ইমন মিয়া, শাহিন সিকদার, সাজ্জাদ হোসেন শিমুল, এইচ এম শুভ প্রমূখ।
পান্ডুঘর যুব সমাজের সহযোগীতায় ‘আমুউজ’ সংগঠনের পক্ষ থেকে
শ্রীকাইল দারুল হুদা আর এস মহিলা মাদ্রাসা, পান্ডুঘর হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা, মাদ্রাসায়ে নূরীয়া গাঙ্গেরকুট, এলখাল রবিউল্লাহ সরকার নূরানীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা, মকলিশপুর আদর্শ নূরানীয়া হাফিজিয়া মাদরাসা, খামারগ্রাম গাবতলী হাফিজিয়া মাদরাসা, কুড়াখাল সৈয়দ দায়েমউল্লা হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা, মাদ্রাসায়ে ইসলামীয়া দারুল উলুম কুড়াখাল, আছানপুর দারুল কোরআন নূরানীয়া মাদরাসা ও এতিমখানা,  পুষ্কনিপাড় মদিনাতুল উলুম হফিজিয়া মাদ্রাসা, যাত্রাপুর নূরিয়া হাফিজিয়া এতিমখানা মাদ্রাসা, বি-চাপিতলা কাজীবাড়ি হাফিজি মাদরাসা, দিলালপুর ইসলাহুল বানাত মহিলা মাদরাসা, গুঞ্জর দক্ষিণ পাড়া হাফিজিয়া মাদরাসা, গাদ্রা হয়রত শাহ জালাল (রহ:) নূরানীয়া হাফিজি মাদরাসা, বাড়ীখলা বহুমুখী হাফিজিয়া মাদরাসায় কম্বল প্রদান করা হয়।
‘আমুউজ’ সাধারণ সম্পাদক মোঃ সামছুল আলম সুমন বলেন-
”মানুষের কল্যাণে নিজের অর্থ-সম্পদ ব্যয় বা প্রদান করাকে দান বলা হয়। ইসলামী জীবন ব্যবস্থায় সাদকা বা দান একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। দান করা একটি অতি মহৎ কাজ। ধনী গরীব ব্যবধান দূরীভূত করে ন্যায় ও ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থা কায়েমে দানের রয়েছে অপরিসীম গুরুত্ব। দান করতে বিশাল অর্থ বিত্তের মালিক হতে হয় না। অল্প পরিমাণ সম্পদের মালিক হলেও দান করার ক্ষেত্রে যথেষ্ট। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, “দান-সাদকা করলে সম্পদ কমে না, দানের ফলে বিপদ আপদ দূর হয়। (তিরমিযী, ইবনে মাজাহ)। এই মহৎ কাজে আমাদের সাথে অনেকে  অর্থ, শ্রম ও পরামর্শ দিয়ে সহায়তা করেছেন। আল্লাহ সকলের দানকে কবুল করুক”।


Categories