“আদালতের রায়ে বিসিসিআইকে ৪ হাজার ৮০০ কোটি রুপি ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে”

প্রকাশিত: ৯:৪৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০২০

আদালতে রায়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) কে ৪ হাজার ৮০০ কোটি রুপি ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের আসন্ন মৌসুম শুরুর ব্যাপারে কোন নিশ্চিত তথ্য দিতে পারছে না ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এ আসর না হলে তাদের ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াবে ৪ হাজার কোটি রুপির বেশি। তবে আইপিএল হোক বা না হোক, বিসিসিআইয়ের প্রায় সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি একপ্রকার নিশ্চিতই বলা যায়।

প্রায় ৮ বছর আগে আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি ডেকান ক্রনিকল হোল্ডিংসের দেয়া মামলা হেরে ৪৮০০ কোটি রুপি বা প্রায় ৫৪০০ কোটি টাকার বেশি ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি সিকে ঠাক্কারের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এ মামলার রায় জানিয়েছে মুম্বাই হাইকোর্ট।

আইপিএলের দ্বিতীয় আসরের চ্যাম্পিয়ন দল ডেকান চার্জার্সকে ২০১২ সালের ১৫ সেপ্টেম্বরে টুর্নামেন্ট থেকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তখনকার আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। তাৎক্ষণিকভাবে এর বিরুদ্ধে কোর্টে মামলা দায়ের করেছিল ডেকান চার্জার্সের মালিক ডেকান ক্রনিকল হোল্ডিংস।

কিন্তু সেই মামলা তোয়াক্কা না করে মাসখানেকের মধ্যেই নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি চেয়ে দরপত্র আহ্বান করে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। যা জিতে নেয় সান নেটওয়ার্ক। বর্তমানে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলটি সান নেটওয়ার্কের মালিকানাধীন। ওদিকে আইপিএলে জায়গা হারিয়ে ছাড় দেয়ার পক্ষপাতি ছিল না ডেকান চার্জার্স।

দীর্ঘ ৮ বছর ধরে চলমান মামলা জিতে বড় অঙ্কের ক্ষতিপূরণের কথা বলে ডেকান ক্রনিকল হোল্ডিংস। প্রাথমিকভাবে তাদের ক্ষতির পরিমাণ দেখান হয় ৬০৪৬ কোটি রুপি, যা কি না ইন্টারেস্টসহ দাঁড়ায় প্রায় ৮ হাজার কোটি রুপি। তবে আদালতে রায়ে বিসিসিআইকে ৮ হাজার নয়, বরং ৪ হাজার ৮০০ কোটি রুপি ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী হেমাং আমিন জানিয়েছেন, এখনও রায়ের কপি হাতে পায়নি বিসিসিআই। রায়ের কপি হাতে পাওয়ার পর নিজেদের আইনজীবীর সঙ্গে আরও শলা-পরামর্শ করেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে তারা।


Categories