আজ বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমেদের ৯৫ তম জন্মবার্ষিকী

প্রকাশিত: ২:২৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০২০

 নূরুল ইসলাম, বগুড়া: বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমেদের ৯৫ তম জন্মবার্ষিকী। তিনি১৯২৫ সালের ২৩ জুলাই গাজীপুর জেলার অন্তর্গত কাপাসিয়ার দরদরিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মৌলভী মো: ইয়াসিন খান এবং মাতা মেহেরুননেসা খান। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তাজউদ্দীন আহমদ ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন।১৯৬৬ সালে তিনি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ সংগঠনে তাজউদ্দীন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন যা মুজিবনগর সরকার নামে অধিক পরিচিত।১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতে তিনি মুক্তিযুদ্ধকে সফল সমাপ্তির দিকে নিয়ে যেতে অসামান্য অবদান রাখেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বাধীন সরকারে অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী দায়িত্ব পান তাজউদ্দীন। পরে ১৯৭৪ সালের ২৬ অক্টোবর বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন।১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তাজউদ্দিন আহমেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। কারাবন্দি থাকার সময়ে ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার অভ্যন্তরে তাকে হত্যা করা হয়। তিনি একজন সৎ ও মেধাবী রাজনীতিবিদ হিসেবে তার পরিচিত ছিল।৪ ভাই ও ৬ বোনের মাঝে চতুর্থ তাজউদ্দীন আহমেদ। পড়াশোনা শুরু বাবার কাছে আরবি শিক্ষার মাধ্যমে। এই সময়ে প্রথম শ্রেণীতে ভর্তি হন বাড়ির থেকে দুই কিলোমিটার দূরে ভূলেশ্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণীতে প্রথম স্থান অর্জন করেন। চতুর্থ শ্রেণীতে ভর্তি হন বাড়ি থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে কাপাসিয়া ইংলিশ স্কুলে। এরপর পড়েছেন কালীগঞ্জ সেন্ট নিকোলাস ইনস্টিটিউশন , মুসলিম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা ও সেন্ট গ্রেগরিজ হাই স্কুলে। তাজউদ্দীন আহমদ পবিত্র কোরআনে হাফেজ ছিলেন,যা তিনি নিয়মিত লেখাপড়ার পাশাপাশি বাবার সান্নিধ্যে আয়ত্ত করেন। তিনি মেট্রিক ১৯৪৪ সালে ও ইন্টারমিডিয়েট পরীক্ষায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়(তৎকালীন জগন্নাথ কলেজ) থেকে অবিভক্ত বাংলার সম্মিলিত মেধা তালিকায় যথাক্রমে দ্বাদশ ও চতুর্থ স্থান( ঢাকা বোর্ড ) লাভ করেন। ১৯৫০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে বি, এ (সম্মান) ডিগ্রি লাভ করেন।১৯৬৪ সালে রাজনৈতিক বন্দী হিসেবে কারাগারে থাকা অবস্থায় এলএলবি ডিগ্রীর জন্য পরীক্ষা দেন এবং পাস করেন।


Categories