অবসর ও কল্যান তহবিলের সুযোগ সুবিধা ১৬৩ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা চাই। 

প্রকাশিত: ১১:৫৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২১

অবসর ও কল্যান তহবিলের সুযোগ সুবিধা ১৬৩ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা চাই। 

পূর্বে অবসর ও কল্যান তহবিলের জন্য শিক্ষকদের মূল স্কেল থেকে কর্তন করা হতো ৬ শতাংশ হারে। অবসরে ৪ শতাংশ এবং কল্যান তহবিলের জন্য ২ শতাংশ হারে। অবসরের জন্য সুযোগ সুবিধা ছিল ৭৫ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা এবং কল্যান তহবিলের জন্য সুযোগ সুবিধা ছিল ২৫ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা। সর্বমোট ১০০ মাসের বেতনের সুযোগ সুবিধা পেত শিক্ষকরা।
কিন্তু বর্তমানে অবসর ও কল্যান তহবিলের জন্য আরও ৪ শতাংশ হারে কর্তন করা হচ্ছে মূল স্কেল থেকে। অবসরে ২ শতাংশ এবং কল্যান তহবিলে ২ শতাংশ হারে। এখন মোট কর্তন দাঁড়িয়েছে মূল স্কেলের ১০ শতাংশ। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো অতিরিক্ত কর্তন করা হচ্ছে কিন্তু পূর্বের সুযোগ সুবিধা বহাল রেখে। অতিরিক্ত কর্তনের কোন সুযোগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে না।
যেখানে অতিরিক্ত ৪ শতাংশ হারে কর্তনের সুযোগ সুবিধা পাওয়ার কথা অবসরে ৩৭.৫ এবং কল্যান তহবিলের জন্য ২৫ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা। সর্বমোট মাসের সংখ্যা দাঁড়ায় (৩৭.৫+২৫) বা ৬২.৫ বা ৬৩ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা।
১০ শতাংশ হারে কর্তনের ফলে  সুযোগ সুবিধা হবে  মোট ১৬৩ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা। কিন্তু বাস্তবতা হলো পূর্বের সুযোগ সুবিধাই বহাল রাখা হলো। এমন সিদ্ধান্তের ফলে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকরা ক্ষতি গ্রস্ত হচ্ছে। অবসরপ্রাপ্ত সময় টুকু নিরাপদে থাকা দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। আমরা বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা ১৬৩ মাসের বেতন সর্বশেষ স্কেলের সমতুল্য টাকা দেওয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি কতৃপক্ষের নিকট। আমরা আশা করি সার্বিক দিক বিবেচনা করে কতৃপক্ষ সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।
ধন্যবাদান্তে
মোঃ আবুল হোসেন, মহাসচিব 
বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষক সমিতি, কেন্দ্রীয় কমিটি।

Categories